আপনার সন্তানও ভিডিও গেম খেলে? তাহলে এই খবরটি আপনার জন্য

author image
4:00 pm 29 Aug, 2017

Advertisement

অনেকেই মনে করেন যে কিছুক্ষণ ভিডিও গেম খেলার পর বাচ্চাদের মনে উত্তেজনা বাড়বে এবং তারা বাকি কাজগুলি মন দিয়ে করবে। তবে বাচ্চাদের সাথে প্রাপ্তবয়স্কদের ভিডিও গেম খেলার অভ্যাস আছে। কিন্তু ভিডিও গেম মন রিফ্রেশ করে না, বরং এটিকে দুর্বল করে দেয়।

নতুন গবেষণা অনুযায়ী, যারা বেশি ভিডিও গেম খেলে তাদের শরীরে সিজোফ্রেনিয়া, পিএসটিডি এবং আল্জ্হেইমের মতো রোগের ঝুঁকি বাড়ছে।

মন্ট্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক গ্রেগ ওয়েস্ট অনুযায়ী, যারা অ্যাকশান ভিডিওয গেম থেলে তাদের মস্তিষ্কের মূল অংশ হিপ্পোক্যাম্পাসে গ্রে মেটার কমে যায়। এই অংশে গ্রে মেটার যত কম হবে তত বিষণ্নতা এবং অন্যান্য মস্তিষ্ক রোগের ঝুঁকি বাড়বে।



যাদের ভিজ্যুয়াল অ্যাটেনশান বা মনোযোগের সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য ভিডিওগেম লাভজনক। কিন্তু নতুন গবেষণায় তাদের এই তথ্য ভুল প্রমাণিত হয়েছে।


Advertisement

এই গবেষণায় ভিডিও গেম খেলে এবং ভিডিও গেম খেলে না এমনধরনের লোকেদের মস্তিষ্ক স্ক্যানিং করে জানা গেছে যারা ভিডিও গেম থেলে না তাদের মস্তিষ্কে গ্রে ম্যাটারের মাত্রা অধিক থাকে। হিপোক্যাম্পাস ছাড়াও মস্তিষ্কের অন্য গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল ‘স্ট্র্যাটাম’। এটি ব্যক্তিটিকে শিথিল করতে সহায়তা করে। সেই সমস্ত জিনিসের ওপর মনোযোগ দিতে সাহায্যে করে যেটা কাজ ছাড়া মানুষকে সুখি রাখতে সাহায্য করে যেমন খাদ্য, পানীয়, সেক্স ইত্যাদি।


Advertisement

যারা ডায়াবেটিস, সিজোফ্রেনিয়া, পিটিএসডি, বিষণ্নতা এবং আল্জ্হেইমের মতো রোগে ভুগছেন তাদের একদম ভিডিও গেম খেলা উচিত নয়। কারণ এর ফলে রোগ আরও বাড়তে পারে।


  • Advertisement