শহিদদের মুন্ডচ্ছেদের প্রতিবাদে স্কুল পড়ুয়াদের মুখে একটি স্লোগান , পাকিস্তান মুর্দাবাদ, হিন্দুস্তান জিন্দাবাদ

author image
4:47 pm 2 May, 2017

যুদ্ধক্ষেত্রের সমস্ত নিয়ম লঙ্ঘন করলো পাক সেনা। সোমবার রকেট ও মর্টার হামলা চালিয়ে দুই জওয়ানকে হত্যা করার পর, শহিদদের মুন্ডচ্ছেদ করে পাকসেনারা নিয়ে গেলেন পাকিস্তানে ৷

ফেব্রুয়ারি মাসেই বাড়ি ফিরেছিলেন সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর 200 নম্বর ব্যাটালিয়নের হেড কনস্টেবল প্রেমসাগর৷ কথা দিয়েছিলেন আবার ফিরে আসবেন৷ এর বদলে দেওরিয়ার বাড়িতে এল তেরঙ্গায় মোড়া তাঁর মুণ্ডহীন দেহ।

বাবার মাথার পরিবর্তে 50 জন পাকিস্তানী সেনার মাথা কেটে আনা হোক, এটাই প্রেমসাগরের কন্যার আর্জি৷ জওয়ানের বাড়ির কাছে স্কুল পড়ুয়ারা নেমে পড়েছেন রাস্তায়৷ মুখে তাদের একটিই স্লোগান- পাকিস্তান মুর্দাবাদ, হিন্দুস্তান জিন্দাবাদ।

সোমবার ভারতীয় সেনার কৃষ্ণ ঘাঁটি সেক্টরকে লক্ষ্য করে মটার বর্ষণ করতে থাকে পাক সেনা৷ বিএসএফের কাছে খবর ছিল নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কিছু জঙ্গি কার্যকলাপ লক্ষ্য করা গেছে৷ তা খতিয়ে দেখতে গিয়েছিল বিএসএফ ও সেনার জয়েন্ট পেট্রল টিম। সেই দলের অঙ্গ ছিলেন বিএসএফের হেড কনস্টেবল প্রেমসাগর এবং ভারতীয় সেনার নায়েব সুবেদার পরমজিৎ সিং।

এরপরই বর্বতার চুড়ান্ত সীমা অতিক্রম করে পাক সেনা৷ দুই ভারতীয় শহিদের মুন্ডচ্ছেদ করে তারা৷ যোগ্য জবাব দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে দুই শহিদের পরিবার৷