Advertisement

ভারতের 8 ভুতুড়ে রেল স্টেশন যেখানে যেতে মানুষ এখনও ভয় পায়

author image
12:52 pm 16 Dec, 2017

Advertisement

সাধারণত রেলওয়ে স্টেশন ভিড়ের জায়গা হিসাবে গণ্য করা হয়। যদি আপনাকে কোনও ভুতুড়ে রেল স্টেশনে একা ছেড়ে দেওয়া হয় তাহলে কি হবে? আজ আমরা আপনাদের এমন সব ভারতীয় রেলওয়ে স্টেশনের সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি যেগুলি ভুতুড়ে।

1. বারগ স্টেশন, শিমলা

শিমলার বারগ রেলস্টেশন বারগ টানেলের সমান এই টানেল কর্নেল বারগ তৈরি করেছিলেন। বলা হয় যে এখানে একজন ইঞ্জিনিয়ার অন্য কর্মচারীদের সামনে অপমানিত হওয়ার পর আত্মহত্যা করে নেয়। যখন তিনি টানেল নিরীক্ষণ করতে যাচ্ছিলেন, তখন তিনি নিজেকে গুলি মেরে নেন। পরে, তার শরীর সেই সুড়ঙ্গের কাছাকাছি সমাহিত করা হয়। বলা হয় যে এখনও তিনি সুড়ঙ্গের চারপাশে রয়েছেন।

2. বেগুনকোডর রেলওয়ে স্টেশন, পশ্চিমবঙ্গ

ভুতুড়ে বেগুনকোডর রেলওয়ে স্টেশন, পশ্চিমবঙ্গ অবস্হিত রয়েছে। গত 42 বছর ধরে স্টেশন বন্ধ রয়েছে স্থানীয় লোকজন মনে করেন যে এই স্টেশনে যায় আর ফিরে আসে না। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি পুনরায় এই স্টেশন খোলার কথা ঘোষণা করেন।

3. রবীন্দ্র সরোবর মেট্রো স্টেশন, কলকাতা

কলকাতার রবীন্দ্র সরোবর মেট্রো স্টেশনও ভুতুড়ে স্টেশনের মধ্যে একটি। বলা হয় যে যারা এখানে আত্মহত্যা করেছে তাদের আত্মা এখানে ঘোরাফেরা করেন বলা হয় যে যদি কেউ এখানের শেষ ট্রেনে সফর করে তাহলে অদ্ভুত আওয়াজ ও জিনিস শুনতে, দেখতে পান।

4. দ্বারকা সেক্টর 9 মেট্রো স্টেশন, দিল্লি

লোকজন বিশ্বাস করে যে দিল্লির দ্বারকা সেক্টর 9 মেট্রো স্টেশনের কাছাকাছি ভূত রয়েছে। কখনও কখনও প্রেতাত্মা গাড়ির পেছনে দৌড়াতে থাকে। যারা গভীর রাতে ভ্রমণ করে তাদের সাথে ভয়ানক ঘটনা ঘটে।

5. এমজি রোড মেট্রো স্টেশন, গুরগাঁও


Advertisement
গুরগাঁও এর এমজি রোড মেট্রো স্টেশন সম্পর্কে বলা হয় যে এখানে একটি প্রেতাত্মা আছে। বলা হয় যে এই স্টেশনে দুর্ঘটনায় একজন মহিলা নিহত হয়েছিল। মেট্রো ট্রেনের কাঁচের ওপর চোখ ও জিভ বের করে ভয় দেখায়।

6. নেনী রেলওয়ে স্টেশন, উত্তরপ্রদেশ

উত্তরপ্রদেশের নেনী রেলওয়ে স্টেশনটিকে ভুতুড়ে বলে মনে করা হয়। বলা হয় যে নেনী কারাগারের নিকটে অবস্হিত এই স্টেশনে মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মা রয়েছে, কারাগারে যাদের মৃত্যু হয়েছিল।

7. চিত্তর রেলওয়ে স্টেশন, অন্ধ্র প্রদেশ

চিত্তর রেলওয়ে স্টেশন ন্যায়ের জন্য ঘুরতে থাকা সিআরপিএফ অফিসার হরি সিং এর আত্মার জন্য কুখ্যাত। এই আধিকারিকের হত্যা 31 অক্টোবর কেরালা এক্সপ্রেসে হয়েছিল। হরি সিংকে মারাত্মকভাবে মারধর করার পর চিত্তর রেলওয়ে স্টেশনের কাছে ট্রেনের সামনে ধাক্কা দিয়ে দেওয়া হয়। 10 দিন হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর তার মৃত্যু হয়।

8. লুধিয়ানা রেলওয়ে স্টেশন

লুধিয়ানা রেলওয়ে স্টেশনের নিজের একটি ভিন্ন গল্প আছে। রিজার্ভেশন কেন্দ্রে একটি ছোট কক্ষ রয়েছে, যেখানে কম্পিউটার রিজার্ভেশন সিস্টেম (সিআরএস) অফিসার সুভাষ চাকরি করতেন। তিনি তার কাজকে অনেক ভালবাসতেন। একদিন এই ছোট রুমে সুভাষের মৃত্যু হয়। বলা হয় যে এই ঘরের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তার আত্মা পিঠে চিমটি কাটে। সুভাষ নিজের কাজকে ভালোবাসতেন বলে তার চেয়ারে কাউকে বসে দিতে চায় না এই ঘরটিকে চিরদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়।

 

Advertisement


  • Advertisement