Advertisement

রাজনীতিবিদদের এই 12 ছবি পুরানো দিনের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়

author image
1:56 pm 9 Nov, 2017

Advertisement

ভারতের প্রজাতন্ত্রের রাজনীতিবিদরা এমনভাবে আমাদের জীবনের সাথে যুক্ত রয়েছেন যে মানুষ তাঁদের উপেক্ষা করতে পারবেন না। বর্তমানে ভারতীয় রাজনীতিবিদ আমরা যেরকম দেখছি অতীতে তাঁদের দেখতে ছিল ভিন্ন। এই রাজনীতিবিদদের ব্যক্তিত্ব সময়ের সাথে পরিবর্তিত হয়েছে। আজ আমরা 12 জন ভারতীয় রাজনীতিকদের পুরানো ছবির সাথে পরিচয় করাতে যাচ্ছি। এই ছবিগুলি দেখে আপনারা অনুমান করতে পারবেন বর্তমানে তাঁরা কতটা পরিবর্তিত হয়েছেন।

1. অটল বিহারী বাজপেয়ী

ভারতীয় জনতা পার্টির শীর্ষ নেতা অটল বিহারি বাজপেয়ি দুবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। প্রথম বছর 1996 সালে, তিনি 13 দিনের জন্য এবং পরে 1998 থেকে 2004 পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী পদে বহাল ছিলেন। বর্তমানে এই অভিজ্ঞ নেতার বয়স 92 বছর এবং তিনি ভারতের সবচেয়ে পুরোনো প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী।

2. লালকৃষ্ণ আদভানি

ভারতীয় জনতা পার্টির বৃহত্ আকার দিয়েছিলেন লালকৃষ্ণ আদভানি। তিনি 2002 থেকে 2004 সাল পর্যন্ত ভারতের সপ্তম উপ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। 1998 থেকে 2004 সালের মধ্যে তিনি তৎকালীন জাতীয় গণতান্ত্রিক জোট সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। তিনি বিজেপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে একজন, যিনি দল গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। 2015 সালে তিনি পদ্মবিভূষণ সম্মানে সম্মানিত ছিলেন।

3. সোনিয়া গান্ধী

কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর নেতৃত্বাধীন দল 2 বার কেন্দ্রে ক্ষমতায় ছিল। 2004 থেকে 2009 সাল পর্যন্ত এবং 2009 থেকে 2014 সাল পর্যন্ত কংগ্রেস পার্টি জোট সরকারের নেতৃত্ব করে এবং সোনিয়া গান্ধীর দক্ষতার দ্বারা এটি সম্ভব হয়েছিল। 2014 সালে তিনি লোকসভায় চতুর্থবার নির্বাচিত হন। কংগ্রেস পার্টির ইতিহাসের 125 বছরে সোনিয়া গান্ধী দীর্ঘদিনের জন্য দলের নেতৃত্বে ছিলেন। তাঁর জন্ম হয়েছিল ইতালিতে এবং এটা ভারতে বিতর্কের বিষয় ছিল।

4. লালু প্রসাদ যাদব

লালু প্রসাদ যাদব 1990 থেকে 1997 সাল পর্যন্ত বিহারের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। পরে 2004 থেকে 2009 সাল পর্যন্ত তিনি ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্স গভর্নমেন্টে রেলমন্ত্রী ছিলেন। পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতে জেল হয়েছিল তাঁর জেল হয়, এখন তিনি জামিনে রয়েছেন অন্যান্য কেলেঙ্কারীতে তিনি জড়িত লালু প্রসাদ যাদব 9 সন্তানের বাবা সন্তানদের মধ্যে রয়েছে 2 ছেলেএবং 7 মেয়ে।

5. মনমোহন সিং

ভারতে অর্থনৈতিক উদারনীতি শুরু করার জন্য মনমোহন সিং-কাছে সকলে ঋণী। প্রতিভাবান অর্থনীতিবিদ মনমোহন সিং 2004 থেকে 2014 সাল পর্যন্ত ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। মনমোহন সিং পিভি নরসিংহ রাও সরকারের অর্থমন্ত্রী ছিলেন।

6. নরেন্দ্র মোদি


Advertisement

বর্তমানে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী 2001 থেকে 2014 সাল পর্যন্ত নরেন্দ্র মোদী গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। 2014 লোকসভা নির্বাচনে তিনি বারানসি আসন থেকে জয়ী হন। প্রধানমন্ত্রীর হিসাবে নরেন্দ্র মোদির তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে রয়েছেন। সম্প্রতি পিউ রিসার্চ পোলে 93 শতাংশ সমর্থন করেছেন। 68 শতাংশ জন বলেছেন তিনি ভালো কাজ করছেন।

7. অরবিন্দ কেজরিওয়াল

অরবিন্দ কেজরিওয়াল জনআন্দোলনের মাধ্যমে রাজনীতিতে আসেন। 2012 সালে তিনি আম আদমি পার্টি প্রতিষ্ঠা করেন এবং 2015 সালে তিনি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হন। এর আগে, তিনি 2013 সালে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হন এবং 49 দিনের জন্য জোট সরকার চালানোর পর পদত্যাগ করেন। শুরুতে তিনি দুর্নীতিবিরোধী নেতা
হিসাবে পরিচিত ছিলেন। কিন্তু মন্ত্রিসভা সদস্যদের দুর্নীতির কারণে তাঁর চিত্র ক্ষতি হয়েছে।

8. সুষমা স্বরাজ

বিদেশমন্ত্রী হিসাবে সুষমা স্বরাজের কাজ অতুলনীয়। ইন্দিরা গান্ধীর পর সুষমা স্বরাজ দেশের দ্বিতীয় বিদেশমন্ত্রী। সুষমা স্বরাজ সাতবার লোকসভা নির্বাচনে হন। তিনি 1977 সালে 25 বছর বয়সে লোকসভার প্রথম সদস্য হন। সুষমা স্বরাজের নাম হরিয়ানা কনিষ্ঠতম মন্ত্রী হিসাবে রেকর্ড রয়েছে। তাদের প্রতি মানুষের ভালোবাসা হল যে আমেরিকান পত্রিকা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে সম্প্রতি সুস্মিতা স্বরাজ সবচেয়ে ভালো রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত হয়েছিলেন।

9. অরুণ জেটলি

অরুণ জেটলি হলেন নরেন্দ্র মোদির সরকারে অর্থমন্ত্রী। দিল্লির হাইকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী, জেটলি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ির সরকারের মন্ত্রীও ছিলেন। অরুণ জেটলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। কিন্তু এখন তিনি এই দায়িত্বে নেই।

10. মায়াবতী

মায়াবতী বহুজন সমাজ পার্টির সর্বোচ্চ নেতা। তিনি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন চারবার। মায়াবতী সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের জাদুকর হিসাবেও পরিচিত ছিলেন। তবে, গত লোকসভা নির্বাচনে বা সাম্প্রতিক উত্তর প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে মায়াবতী সফল হয়নি। বলা হচ্ছে যে মায়াবতীর জাদু শেষ হচ্ছে।

11. রাহুল গান্ধী

রাহুল গান্ধী কংগ্রেস পার্টির ভাইস প্রেসিডেন্ট। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। কংগ্রেস পার্টি বর্তমানে রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে দাড় করানোর চেষ্টা করছে।

12. মমতা ব্যানার্জি

মমতা ব্যানার্জি শুধুমাত্র একজন জননেত্রী নয়। তারসাথে তিনি কবি, লেখক এবং শিল্পীও 2011 সালে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হন। 1997 সালে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস (এআইটিএমসি) প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি এই দলের প্রধান।

Advertisement


  • Advertisement