Advertisement

বিশ্বের 10 বৃহত্তম স্বর্ণের খনির সম্পর্কে জানুন

author image
1:40 pm 2 Dec, 2017

Advertisement

সোনা কে পছন্দ করে না। সাধারণত আমরা ভারতীয়রা যে কোনও শুভ কাজে সোনা পড়তে ভালোবাসি। কিন্তু আপনি কি জানেন যে বিশ্বের কোন খনি থেকে কত পরিমাণে সোনা নির্গত হয়? সম্ভবত না। আজ আমরা আপনাদের বিশ্বের 10 বৃহত্তম স্বর্ণের খনির সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি।

1. উজ্বেকিস্তান, মুুরুনতোত খান

উৎপাদনের দিক থেকে, বিশ্বের সর্ববৃহৎ স্বর্ণের খনি হলো উজবেকিস্তানের মুুরুনতোত। এই খনির দৈর্ঘ্য প্রায় 3.35 কিলোমিটার এবং প্রস্থ প্রায় 2.5 কিলোমিটার। এর গভীরতা 560 মিটার। 2014 এবং 2015 সালে এই খনি থেকে প্রায় 61 টন স্বর্ণ নির্গত হয়েছিল। একটি হিসেব অনুযায়ী, এই খনি থেকে এখনও 1700 লক্ষ আউন্স স্বর্ণ থাকার অনুমান করা হয়েছে।

2. ইন্দোনেশিয়া, গ্রেসবার্গের খনি

সোনা উৎপাদন ইন্দোনেশিয়া দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ। এখানে সোনা গ্রাসবার্গ খনি থেকে নির্গত হয়। প্রায় 18 হাজার মানুষ এখানে কাজ করে। 2015 সালে 42.3 টন সোনা নির্গত হয়েছিল।

3. আমেরিকা, গোল্ডস্ট্রাইক খনি

সোনার উৎপাদনে আমেরিকা বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ। এখানে সোনা গোল্ডস্ট্রাইক খনি থেকে নির্গত হয়। 1987 সালে সনাক্ত করা হয়েছিল। 2011 সালে, এই খনি থেকে প্রায় 32.8 টন সোনা বের করা হয়েছিল।

4. আমেরিকা, কোর্টজের খনি

বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম সোনার খনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও রয়েছে। কোর্টজের খনিতে প্রায় 4,000 কর্মী নিযুক্ত রয়েছেন। এই খনি থেকে, 31.1 টন স্বর্ণ প্রায় 2015 সালে বের করা হয়েছিল।

5. ডমিনিকান রিপাবলিক, ফুবেলা ওয়েজো

বিশ্বের পঞ্চম স্থানে রয়েছে ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র ডোমেনের ক্যারিবিয়ান খনি। এই খনি থেকে সোনা বের করার কাজ বারিকগোল্ড এবং গোল্ডকর্প নামের কোম্পানী করে। ক্যারিবিয়ান দেশের একটি চুক্তি অনুযায়ী, মোট স্বর্ণের উত্পাদনের 7.5% দেশকে দিতে হয়। এই খনিতে 2015 সালে 29.7 টন সোনা নির্গত হয়েছিল।

6. পেরু, হ্যাঙ্কক খনি


Advertisement

দক্ষিণ আমেরিকার পেরু সোনার উৎপাদন বিশ্বেরমধ্যে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। সমুদ্রকতল থেকে 3500-4100 মিটার উচ্চতায় অবস্হিত রয়েছে। এই খনি চালানোর কাজ করে নিউমোট, মিনাস, ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্সিয়াল করপোরেশনের। 2015 সালে এই খনি থেকে প্রায় 28.6 টন সোনা বের করা হয়েছিল।

7. আমেরিকা, কার্লিন ট্রেন্ড

আমেরিকার নেভাদাতে অবস্হিত কার্লিন ট্রেন্ড খনি সোনার উৎপাদনে সপ্তম স্হানে রয়েছে। ভূগর্ভস্থ এবং খোলা খনি উভয়েই ধরনের। 2015 সালের মধ্যে প্রায় 27.6 টন সোনা বের করা হয়েছিল।

8. মেক্সিকো, পেনাসকিউনটো

অষ্টম স্হানে রয়েছে মেক্সিকোর পেনাসকিউনটো খনি। 2015 সালে প্রায় 26.8 টন সোনা বের করা হয়েছিল।

9. পাপুয়া নিউ গিনি, লিহির

সোনা উত্পাদনে পাপুয়া নিউ গিনি নবম স্হানে রয়েছে। 1997 সাল থেকে এখানে সোনার উৎপাদন শুরু হয়েছিল। 2015 সালে 25 টন সোনা বের করা হয়।

10. অস্ট্রেলিয়া, বেডিংটন

অস্ট্রেলিয়ার বোডিংটন খনি সোনা উৎপাদনের জন্য বিশ্বের দশম স্থানে রয়েছে। এই খনিতে, স্বর্ণ ও তামার উভয়ের একটি স্টক রয়েছে। 2015 সালে এই খনি থেকে 24.7 টন স্বর্ণ বের করা হয়েছিল।

 

Advertisement


  • Advertisement