Advertisement

আপনার প্রিয় ক্রিকেটাররাও কুসংস্কারে বিশ্বাসী, ম্যাচে জয়ী হওয়ার জন্য এই সমস্ত কাজ করেন

author image
11:55 am 2 Dec, 2017

Advertisement

মানুষ বহু বহু বছর ধরে জ্যোতিষশাস্ত্রের ওপর বিশ্বাস করে আসছে এবং এখনও মানুষ এতে বিশ্বাস করে। আপনি এটিকে কুসংস্কার অথবা অন্য কিছু বলে থাকেন। কিন্তু মানুষ তাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কাজের জন্য জ্যোতিষশাস্ত্রের সাহায্য নেন। কেবল সাধারণ মানুষ নয়, সেলিব্রিটিরাও এতে বিশ্বাস করেন। আপনি জানার পর অবাক হবেন কিছু ক্রিকেটারও আছে যারা এই বিষয়ে বিশ্বাস করেন। আপনার পছন্দের ক্রিকেটাররাও ম্যাচের জয়ী হওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতি নিয়ে থাকেন।

বিরাট কোহলি

ভারতীয় ক্রিকেট দলের উজ্জ্বল অধিনায়ক বিরাট কোহলিও কুসংস্কারচ্ছন্ন। রিপোর্ট অনুযায়ী, বিরাট তাঁর হাতে কালো রিস্টব্যান্ড পড়ে থাকেন এর আগে, তিনি প্রতিটি ম্যাচে একটা গ্লাভস পরতেন। রিস্টব্যান্ড ছাড়া 2012 সালে, তিনি তাঁর ডান হাতে কড়া পড়েন।

শচীন টেন্ডুলকার

শচীনও অন্ধবিশ্বাসী তিনি প্রায়ই তাঁর বা পায়ে প্যাড পড়েন এবং প্রিয় ব্যাট নিয়ে খেলে থাকেন। ক্রিকেট বিশ্ব কাপের আগেই শচীনের খারাপ হয়ে যাওয়া ব্যাটকে ঠিক করিয়েছিলেন।

মহেন্দ্র সিং ধোনি

প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি জার্সি নং 7 শুভ মনে করেন। এই ক্ষেত্রে, তিনি প্রতি ম্যাচ 7 নম্বর জার্সি পরেন।

যুবরাজ সিং

জার্সি নম্বর 12 হল যুবরাজের জন্য শুভ কারণ তাঁর 12 মাসের 12 তারিখে জন্ম হয়েছিল।

বীরেন্দ্র শেবাগ


Advertisement

একটি সংবাদপত্রের রিপোর্ট অনুযায়ী, বীরেন্দ্র শেহবাগের মাকে একজন নিউমোওরোলজিস্ট বলেছিলেন যে শেবাগকে সংখ্যা ছাড়া জার্সি পরতে। সেই কারণে আপনি লক্ষ্য করেছেন যে তাঁর জার্সিতে কোন সংখ্যা লেখা থাকে না। আগে তিনি 44 নম্বর জার্সি পরতেন।

রবিচন্দ্রন অশ্বিন

সূত্র মতে, অশ্বিন সবসময় তাঁর সাথে একটি ব্যাগ রাখেন। আশ্বিন বিশ্বাস করেন যে ব্যাগটি কেবল তাঁর জন্যই নয় বরং সমগ্র দলের জন্য সৌভাগ্যপূর্ণ। যখন তিনি ব্যাগ নিয়ে আসেন, তখন ভারত সেই ম্যাচে জয়লাভ করে।

জাহির খান

সম্প্রতি বিয়ের বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। এই ক্রিকেটার প্রতি ম্যাচে হলুদ রঙের রুমাল রাখেন। তাঁর জন্য এই হলুদ রঙ শুভ।

রাহুল দ্রাবিড়

রাহুল দ্রাবিড় সবসময়ই ডান পায়ে প্রথমে প্যাড পড়েন। কোন সিরিজ আগে নতুন ব্যাট নিয়ে খেলেন না।

অনিল কুম্বলে

10 উইকেট নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড তৈরি করেছিলেন অনিল কুম্বলে। বিজয়ের ক্ষেত্রে তিনিও কিছুটা কুসংস্কারচ্ছন্ন। তাঁর মতে, যখনই তিনি শচীনকে তাঁর টুপি এবং সোয়েটার দিয়ে আসেন, তিনি উইকেট নিতে সফল হন।

Advertisement


  • Advertisement