Advertisement

34 বছর ধরে দুই কাপ চা পান করে বেঁচে রয়েছেন এই সন্ন্যাসীনি

author image
5:04 pm 24 Aug, 2017

Advertisement

খিদে কার পায় না এবং অসুস্হ কারা হয় না? আমদের সকলেরই খিদে পায় এবং অসুস্হও হয়ে পড়ি। কিন্তু এমন একজন সন্ন্যাসীনি রয়েছে যার কখনও খিদে পায় না এবং উনি কখনও অসুস্হ হননি। অন্যভাবে বলতে গেলে বলা হবে যে তিনি ক্ষুধা এবং রোগের ওপর বিজয় লাভ করেছেন।

স্বতন্ত্র জৈন খারতারকচ সম্প্রদায়ের সন্ন্যাসীনি বিমলায়শশ্রীজী 34 বছর ধরে মাত্র 2 কাপ চা পান করে বেঁচে রয়েছেন। তিনি চা-এর ওপর নির্ভর করে জীবিত রয়েছেন। তিনি প্রতিদিন সকাল 8 টা এবং দুপুর 12 টার সময় আহারের পরিবর্তে চা পান করেন এই 2 কাপ চা তাঁর শরীরের চাহিদা পূরণ করে।

ডাক্তাররা বলছেন 57 বছর বয়সী এই সন্ন্যাসীনি সম্পূর্ণ সুস্থ। দুই কাপ চা তাঁর শরীরের চাহিদা পূরণ করে। এই জৈন সন্ন্যাসীনির শরীর অল্প খাবারে অভস্ত হয়ে গেছে। শুধু চা পান করে তিনি এখনও পর্যন্ত কোনও সমস্যায পড়েননি।


Advertisement

সন্ন্যাসীনি বিমলায়শশ্রীজী বলেছেন, 14 ই মে, 1975 সালে তিনি জয়পুরের ভিখক্সশ্রীজী মহারাজ এবং বিজেন্দ্রশ্রীজীর কাছ থেকে দীক্ষা নেন। তখন তাঁর বয়স ছিল 15 বছর। দীক্ষা গ্রহণের 8 বছর পর তিনি একদিন সারাজীবন ব্রত করার সিদ্ধান্ত নেন। সন্ন্যাসীনির প্রতিদিনের রুটিন স্বাভাবিক তাই জন্য তাঁর বেশি শক্তির প্রয়োজন হয়ে না।

অল ইন্ডিয়া শ্বেতমবার জৈন মহাসংঘের সচিব যোগেন্দ্র স্যান্ড বলেছেন, বিমলায়শশ্রীজীর একবার চিকেনগুনিয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি চিকিত্সা ছাড়াই সুস্হ হয়ে যান। একবার দুর্ঘটনায় পায়ের হাড় ভেঙ্গে যায় কিন্তু সেটাও নিজে নিজেই ঠিক হয়ে যায়। দীর্ঘদিন ধরে চা পান করার ফলে তাঁর অন্ত্র সংকুচিত হয়ে গেছে। তাই জন্য তাঁর ক্ষিদে পায় না।

দুই কাপ চা থেকে প্রতিদিন তিনি 1200-1400 ক্যালরি পান। যেটা তার শরীরের জন্য যথেষ্ট। লবণের অভাবে শরীর অভিযোজিত হয়ে গেছে।

Advertisement


  • Advertisement