Advertisement

আগের জন্ম আপনি কি ছিলেন ? এই ধরনের প্রশ্নের মাধ্যমে ফেসবুক থেকে তথ্য চুরি করা হয়

author image
12:21 pm 23 Mar, 2018

Advertisement

ফেসবুক বিশ্বের প্রায় 220 কোটি লোকের অ্যাকাউন্ট রয়েছে। অর্থাত্ বিশ্বের 7.6 বিলিয়ন জনসংখ্যার 25 শতাংশ ফেসবুকে রয়েছে। ভারতে এই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মটি বেশ জনপ্রিয়। আপনি যদি ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন তবে এই খবরটি আপনার জন্য।

ফেসবুকে প্রায় 5 কোটি ইউজার ব্যক্তিগত তথ্য চুরি হয়ে গেছে। এটাকে তথ্য চুরির সবথেকে বড় মামলা বলা হচ্ছে।

এখন প্রশ্ন উঠছে তথ্য কিভাবে ফাঁস হলো।

আপনি ফেসবুকে এই ধরনের সব ক্যুইজ দেখেছেন, যেখানে অদ্ভুত ধরনের প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হয়। আপনি আগের জন্মে কি ছিলেন? আপনার সত্যিকারের বন্ধু কে? পরবর্তী জন্মে আপনার জন্ম হবে? আপনি কবে আপনার সত্যিকারের ভালোবাসা খুঁজে পাবেন? আপনার বিয়ে কবে হবে?

আপনি যদি কখনও ফেসবুকে এই ধরনের প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন তবে সতর্ক থাকুন। যে কোটি কোটি লোকের তথ্য চুরি হয়েছে তার মধ্যে আপনার নামও থাকতে পারে। এই ধরনের প্রশ্নের মাধ্যমে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করা হয়।

চুরি করা ডেটা সারা বিশ্বের অনেক দেশের ইউজার রয়েছে। তাদের প্রাইভেসী সেটিংস মজবুত না থাকার কারণে তাদের তথ্য চুরি হয়েছে।

ফেসবুকে 5 কোটি ইউজারের তথ্য চুরি হওয়ার পর সোশ্যাল সাইটের বিশ্বাসযোগ্যতার ওপর প্রশ্ন উঠছে।

জানুন কিভাবে আপনার ডেটা চুরি হয়েছে এবং এর ব্যবহার কোথায় করা হয়েছে।

ফেসবুককে সমালোচনার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। কারণ ব্রিটিশ পরামর্শদাতা সংস্থা কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে, 5 কোটি গ্রাহকের তথ্য চুরি করে মার্কিন নির্বাচন প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করা হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা কোম্পানীও যুক্ত রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে ভোটারদের মতামত কাজে লাগানোর জন্য ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্য চুরি করা হয়েছে।

কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কোগান একটি ফেসবুক ভিত্তিক ব্যক্তিত্ব প্রেডিক্টর অ্যাপ তৈরি করেন। ‘দিস ইস ইওর ডিজিটাল লাইফ’ এই অ্যাপ প্রায় 270,000 লোক ডাউনলোড করে। এই অ্যাপ্লিকেশন মাধ্যমে মানুষের তথ্য চুরি করা হয়েছে। সেই ইউজারদের ফ্রেন্ডলিস্টের তথ্যও চুরি করা হয়েছে।

কেমব্রিজ অ্যানালিটিক কোম্পানী ডেটা মাইনিং এবং বিশ্লেষণের কাজ করে। এই কোম্পানি রাজনৈতিক দলগুলির নির্বাচন কৌশল তৈরি করতে সাহায্য করে। কোম্পানির সাথে জড়িত কর্মচারী ক্রিস্টোফার বলেছেন, নৈতিকতার কথা বলতে গিয়ে ট্রাম্পের লাভ করাতে এবং নির্বাচন প্রভাবিত করতে ফেসবুকে উপভোক্তাদের তথ্য ব্যবহার করা হয়েছিল।

এই তথ্য ফাঁস হওয়ার পর ফেসবুক কেমব্রিজ অ্যানালিটিক অধ্যাপক আলেকজান্ডার কোগানকে স্থগিত করেছে। তথ্য চুরির দায় কার্যত স্বীকার করেছে ফেসবুক।

foxnews

জানুন কিভাবে আপনার ডেটা নিরাপদ রাখবেন।

আপনার ফেসবুক নিরাপত্তা সেটিংস দেখুন এবং গোপনীয়তা মনে রাখবেন। সুপরিচিত ওয়েবসাইট বা অ্যাপ্লিকেশনের ক্যুইজে অংশ নেবেন।

এছাড়াও আপনার ফেসবুক সেটিংস যান। সেটিংস অপশান ক্লিক করুন এরপর আপনার বাদিকে নীচের দিকে অ্যাপ লেখা রয়েছে তার ওপর ক্লিক করুন।


Advertisement

এরপর আপনার স্ক্রীনে চারটি অপসান আসবে Apps, Websites and Plug-ins (অ্যাপ ওয়েবসাইট এবং প্লাগইন) র সাথে আসা Edit ক্লিক করুন।

ক্লিক করার পরে পপ আপ উইন্ডো খুলবে। এতে Disable Platform ক্লিক করুন। এটা করার পর ফেসবুকের থার্ড পার্টি সাইট ব্যবহার করতে পারবেন না।

 

কোন তথ্য ফেসবুকে কোন জন দেখতে পারবেন সেটা আপনি ঠিক করতে পারবেন।

মামলাটি সামনে আসার পর ফেসবুকের সিইও মার্ক জুকারবার্গ কার্যত তথ্য চুরি যাওয়ার যাবতীয় অভিযোগ স্বীকার করে জানিয়ে দিলেন, গ্রাহকদের তথ্য সুরক্ষিত রাখতে সবরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করবে ফেসবুক। জুকারবার্গ একটি পোস্ট লিখেছেন,

“সমস্ত ইউজারদের তথ্য সুরক্ষিত রাখার দায়িত্ব আমাদের। অন্যথায় আপনাদের পরিষেবা দেওয়ার যোগ্য নই। কিভাবে ঘটেছে সেটা জানার চেষ্টা করছি । চেষ্টা করবো আবার এই রকম না হোক।”

তিনি আরো লিখেছেন, ফেসবুক তার ইউজারদের একটি নতুন টুল দেবে, যাতে তারা জানতে পারে তাদের ডেটা ব্যবহার কোথায় করা হচ্ছে। জুকারবার্গ বলেন যে কোম্পানী ডেভলপারদের নিষিদ্ধ করবে ফেসবুক। ইউজার নেম, প্রোফাইল ফটো ও ই-মেল ছাড়া অন্য কোনও তথ্য নেওয়া যাবে না।

Advertisement


  • Advertisement