Advertisement

‘পদ্মাবতী’ যে দৃশ্য নিয়ে বিরোধ হচ্ছে, ফাঁস হলো সেই অংশ

author image
11:36 am 29 Nov, 2017

Advertisement

সঞ্জয় লীলা ভানসালির ছবি ‘পদ্মাবতী’ নিয়ে বিতর্ক বেড়ে চলছে। দেশের বিভিন্ন অংশে নিষেধাজ্ঞার দাবিতে আন্দোলন করা হচ্ছে।

এই ছবির প্লট নিয়ে বিতর্ক চলছে। রাজস্থানের কর্ণী সেনা, বিজেপি নেতৃবৃন্দ এবং হিন্দু সংগঠনগুলো ইতিহাসকে ভুল ভাবে দেখানোর অভিযোগ করেছে।

কর্ণী সেনা থিয়েটার জ্বালানোর, প্রাণ নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে। তাদের দাবি তারা এই সিনেমাটিকে মুক্তি হতে দেবে না। কারণ এখানে ভুলভাবে সবকিছু প্রদর্শন করা হয়েছে।

‘পদ্মাবতী’ শুটিংর শুরু থেকেই বিতর্ক শুরু হয়েছে। রাজস্থানে শুটিং চলাকালীন, পরিচালক সঞ্জয় লীলা ভানসালির ওপর কর্ণী সেনা হামলা করে। তাছাড়া নাক কাটা থেকে শুরু করে শিরচ্ছেদদ করারও হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

মেরঠের একজন রাজপুত নেতা সঞ্জয় লীলা ভানসালির শিরচ্ছেদ করার জন্য পাঁচ কোটি টাকা পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। রাজপুত কার্নি বাহিনীর মহীপাল সিং মকরন দীপিকা পাড়ুকোনের নাকে কাটার হুমকি দিয়েছে।

এই দৃশ্য নিয়ে বিরোধ হচ্ছে:

প্রতিবাদকারীদের মতে, ‘পদ্মাবতী’ ছবিতে আলাউদ্দিন খিলজীর প্রশংসা করা হচ্ছে। তারা অভিযোগ করেছে যে এই ছবিতে খিলজী ও পদ্মাবতী মধ্যে একটি ঘনিষ্ঠ দৃশ্য দেখানো হয়েছে।

প্রকৃতপক্ষে, খিলজী এবং পদ্মাবতীর মধ্যে একটি স্বপ্নের দৃশ্যের শুটিং করা হয়েছে, যা নিয়ে রাজপুতরা আপত্তি করেছে। কর্ণী সেনার মতে, সেই দৃশ্যে খিলজী এবং পদ্মাবতীর মধ্যে প্রেমের দৃশ্য রয়েছে যেটা বরদাস্ত করা হবে না।

অভিযোগকারীরা বলছেন যে ইতিহাসে এমন কোন উল্লেখ নেই যে, পদ্মাবতী ও খিলজীর মধ্যে কোন সংযোগ নেই। এই চলচ্চিত্রটি ইতিহাসের অপমান।

তারা বলেছেন, রানী পদ্মাবতীকে যেভাবে চলচ্চিত্রে দেখানো হয়েছে সেরকম রাজপুত বা রাজকীয় পরিবার হয় না।

ঘুমর নাচের সম্পর্কে বলা হচ্ছে রানীরা পুরুষদের সামনে নৃত্য করতেন না।


Advertisement

জানুন কে ছিলেন রানী পদ্মাবতী?

রানী পদ্মাবতী পদ্মিনী নামেও পরিচিত ছিলেন। তিনি চিত্তরগড়ের রানী ছিলেন। বলা হয় খিলজি রাজবংশের শাসক আলাউদ্দিন খলজী পদ্মাবতীকে পেতে চেয়েছিলেন। যখন রাণী জানতে পারলেন যে, তিনি রাজপুতের অন্যান্য নারীদের সঙ্গে জহর করে নেন। এই কাহিনীটি ঐতিহাসিক আর.ভি. সিং-র রাজপুতানা ইতিহাস বইতে রয়েছে।

 

Advertisement


  • Advertisement