Advertisement

ভারতে ঠিক এইভাবে হয়েছিল শূন্যের আবিষ্কার, আমাদের চিন্তাধারা থেকে বহু বছর পুরানো

author image
4:34 pm 15 Sep, 2017

Advertisement

ভারত শূন্যের সৃষ্টিকর্তা, প্রায় সবাই এটা জানেন। কিন্তু শূন্য সম্পর্কে একটি নতুন তথ্য সামনে এলো। কার্বন ডেটিংয়ের একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় জানা গেছে শূন্যের অস্তিত্বের প্রথম রেকর্ডটি বহু পুরানো। কার্বন ডেটিং এর নতুন অনুসন্ধান অনুযায়ী শূন্য তৃতীয় বা চতুর্থ শতাব্দীর। অর্থাত্ শূন্যের অস্তিত্ব 500 বছর পুরানো। তারসাথে এটাকে শূন্যের প্রাচীনতম পান্ডুলিপির প্রমাণ বলে মনে করা হচ্ছে। বখশালী পাণ্ডুলিপিতে রেকর্ড থেকে স্পষ্ট যে প্রাচীনকাল থেকেই শূন্যের খুব ভালো ব্যবহার করা হতো।

এই পান্ডুলিপি 1881 সালে পাকিস্তানের পেশোয়ারে পাওয়া যায়, যা 1902 সাল থেকে অক্সফোর্ডের বোডলিয়ন লাইব্রেরীতে সংরক্ষিত রয়েছে। একই সময়ে, গওয়ালিয়রের একটি মন্দিরের দেওয়ালে শূন্যের উল্লেখ সবচেয়ে প্রাচীন প্রমাণ হিসেবে বিবেচিত হয়।

কার্বন ডেটিংয়ের এই নতুন গবেষণার মতে, গবেষকদের পক্ষে পাণ্ডুলিপি কোন সময়ের সেটা বলা সম্ভব নয়। কারণ এটি 70 টি খাদ্যপৃষ্ঠা নিয়ে গঠিত এবং তিনটি বিভিন্ন সময় বস্তুর প্রমাণ রয়েছে।


Advertisement
628 খ্রিস্টাব্দে ভারতীয় জ্যোতিষী এবং গণিতবিদ ব্রহ্মগুপ্ত ‘ব্রহ্মসফুকসিস্থান’ নামে একটি বই লিখেছিলেন, যেটাকে শূন্য সম্পর্কে লেখা প্রথম বই বলে মনে করা হয়। শূন্যের নতুন প্রমাণকে লন্ডনের সায়েন্স মিউজিয়াম 4 অক্টোবর, 2017 সালে ‘Illuminating India: 5000 Years of Science’ প্রদর্শিত করা হবে।

এই নতুন আবিষ্কার ভারতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কারণ যে বৃত্তাকার আকৃতির ব্যবহার আমরা শূন্য হিসাবে করি। সেই রকমই আকৃতির ব্যবহার বখশালী পাণ্ডুলিপিতে করা হয়েছে, এর থেকে নিশ্চিত যে শূন্যের আবিষ্কার ভারতে হয়েছিল।

 

Advertisement


  • Advertisement