ঢিনচ্যাক পূজার সম্পর্কে এই 16 বিষয় আপনি কি জানেন?

author image
4:53 pm 27 Oct, 2017

Advertisement

অন্যান্য তরুণীদের মতোই সাধারণ জীবনযাপন করচেন ঢিনচ্যাক পূজা। এই অজানা মেয়েটি মাত্র 2 বছরের মধ্যেই বিখ্যাত হয়ে ওঠে। মানুষ প্রায়ই তার গানগুলি নিয়ে মজা করে থাকে। “সোয়গ ওয়ালি টপী” থেকে “আফরিন বেফা হ্যায়” মতো গান গেয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছেন।

 

ঢিনচ্যাক পূজার সবকটি গান ভাইরাল হয়েছে। ‘বিগ বস 11’ ঘরে তাকে প্রতিযোগীদের ওপর গান তৈরি করার কাজ দিয়েছে। তাঁর কণ্ঠস্বরের দক্ষতা যাই হোক না কেন এটাই তাঁর প্রকৃত ক্ষমতা।


Advertisement

গানর পাশাপাশি ঢিনচ্যাক পূজার সম্পর্কে এমন অনেক বিষয় আছে যেগুলির সম্পর্কে অনেকেই জানে না। ঢিনচ্যাক পূজার সম্পর্কে 16 টি মজার জিনিস যা আপনি জানেন না।

1. ঢিনচ্যাক পূজার আসল নাম পূজা জৈন। পূজা জানিয়েছিলেন তিনি নিজের জন্য অনন্য নাম রাখতে চান এবং এভাবে তিনি তার নাম আগে ঢিনচ্যাক যোগ করেন।



ইন্টারনেট সেনসেশন হয়ে ওঠার জন্য চাই একটা দমদার নাম। মাথায় আসে দু’টি নাম। একটি হল ‘রাপচিক পূজা’ এবং অন্যটি ‘ঢিনচ্যাক পূজা’। কিন্তু তিনি ভাবেন ‘রাপচিক’ ছেলেদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। সেই কারণে তিনি তার নামের আগে ঢিনচ্যাক যোগ করেন।

2. ঢিনচ্যাক পূজার জন্ম 16 ডিসেম্বর, 1992 সালে।

3. প্রথমে তার পরিবার উত্তরপ্রদেশে থাকতো। পরে তারা দিল্লিতে চলে আসে।

এক সাক্ষাত্কারে এই ইউটিউব তারকা জানান তিনি পূর্ব দিল্লিতে বসবাস করেন। কিন্তু তার গোপনীয়তা বজায় রাখার জন্য তার ঠিকানা প্রকাশ করেননি।

4. ‘বিগ বস’ শোতে সালমানের সাথে কথা বলার সময় ঢিনচ্যাক বলেন ‘সেলফি ম্যায়নে লে লি আজ’ তার জন্য একটি বড় আর্থিক সাফল্য ছিল।

‘সেলফি’ গানের কারণে ইউটিউব থেকে প্রায় 7 লাখ টাকা আয় করেছেন।

5. ইউটিউব থেকে পূজার মাসিক আয় কুড়ি হাজার থেকে দু লক্ষ টাকা।

6. তার ‘সেলফি’ গানটি অন্যান্য বলিউড সুপারস্টারের গানের তুলনায় অনেক বেশি ভিউ পেয়েছে।

7. ঢিনচ্যাক পূজার গানের অনুপ্রেরণা মাইকেল জ্যাকসন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত পূজা তাঁর কোনও গান গাননি।

8. ‘বিগ বস’র ঘরে এক প্রতিযোগীর সাথে কথা বলার সময় তিনি জানান তিনি নিজেই গান লেখেন। কখনও কখনও ম্যানেজার এবং অ্যাডভাইজার তাঁকে সাহায্য করেন।

9. তিনি একজন প্রশিক্ষিত গায়িকা নন। তিনি কারো কাছ থেকে গান গাওয়া সম্পর্কে কিছুই শেখেননি।

10. ঢিনচ্যাক পূজা ‘রশকে কমর’ গানটি নিজের আওয়াজে গাইতে চান (হ্যাঁ, আপনি ঠিক পড়েছেন)।

11. অনেকেই ভাবেন যে, পূজার গানের ভিডিওগুলিতে তাঁর বন্ধুরাও থাকেন। তা কিন্তু নয়। পূজাই ব্যাপারটা নিয়ে বলেছেন। তিনি জানান, তাঁরা সবাই অভিনেতা।

12. তার ইউটিউব চ্যানেলে 2,67,251 গ্রাহক রয়েছে। কিন্তু তাঁর গানের লক্ষ লক্ষ ভিউ রয়েছে।

13. পূজা নাকি কোনও কমেন্ট পড়েন না। কোনও বিরূপ মন্তব্য থেকে শতহস্ত দূরে থাকেন।

14. ঢিনচ্যাক পূজা প্রতিযোগিতায় বিশ্বাস করেন না। তাঁর বিশ্বাস প্রত্যেকের নিজের জিনিস কাজ করে।

15. ভিডিওতে যে লাক্সারি গাড়িতে তাঁকে দেখা যায়, সেগুলি নাকি তাঁর এক আত্মীয়ের।

16. পূজার বন্ধুরাই নাকি তাঁকে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছিলেন। তারাই প্রথম তাঁর মধ্যে গান করার প্রতিভা দেখতে পান।

‘বিগ বস বস’ ঘরে প্রবেশ করার সাথে অনেক খবর তৈরি হয়েছে। চুলে উকুন থাকার জন্য অন্যান্য প্রতিযোগীদের কাছে মজার খোরাক হয়েছেন। কিন্তু দর্শকরা তাঁকে সমর্থন করেছে। এখন প্রতিযোগীরা তাঁকে ‘জেল পাঠিয়েছে কিন্তু প্রতিযোগীদের জন্য তিনি গান লিখতে ব্যস্ত।


Advertisement

ঢিনচ্যাক পূজা ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছেন। বিরূপ মন্তব্য থেকে শতহস্ত দূরে থাকেন এবং সর্বদা তার ইচ্ছানুযায়ী কাজ করেন।


  • Advertisement