Advertisement

বহু বছর ধরে জ্বলছে শান্তির প্রতীক হিরোশিমা পিস মেমোরিয়াল

author image
5:11 pm 18 Aug, 2017

Advertisement

আগস্ট 1945 সালে আমেরিকা হিরোশিমার ওপর পারমাণবিক বোমা হামলা করে। যারপর পাল্টে যায় এই শহরের বর্তমান এবং ইতিহাস। আমেরিকার বোমা হামলার এই শহরের পরিস্হিতি এতটা ভয়াবহ হয়ে গিয়েছিল যে এত বছর পরেও তার ক্ষত পূরণ হয়েনি।

আমেরিকা প্রথম বোমা নিক্ষেপ করেছিল জাপানের হিরোশিমা শহরে, পারমাণবিক বোমা হামলার পরে মৃত্যু হয়েছিল 80,000 জনের। শুধু তাই নয় বোম থেকে নির্গত হওয়া বিকিরণের প্রভাব বহু বছর ধরে ছিল। যার ফলে মৃত্যুহার অবিলম্বে বাড়তে থাকে।

বিশ্ব ইতিহাসের এই ভয়াবহ ঘটনার স্মৃতিরক্ষার জন্য বিশ্বব্যাপী অনেক মিনার তৈরি করা হয়েছে। এই মিনারের মধ্যে একটি হলো হিরোশিমা পিস ফ্লেম অর্থাত্ হিরোশিমা পিস মেমোরিয়াল যেটাকে শান্তি শিখাও বলা হয়।


Advertisement

এই মেমোরিয়াল হিরোশিমা মেমোরিয়াল পার্কে অবস্হিত রয়েছে এবং পারমাণবিক বোমা হামলায় মৃত ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে নিবেদিত করা হয়েছে।

স্মারক শিখা 1 আগস্ট, 1964 সাল থেকে ক্রমাগত জ্বলন্ত বস্তুত, যতদিন না পর্যন্ত সমগ্র বিশ্ব থেকে পারমাণবিক অস্ত্রের বিনাস হচ্ছে ততদিন এই শিখা জ্বলবে।

এই স্মৃতিস্তম্ভের নকশা তৈরি করেছিলেন টোকিও ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক কেন্জো তাং। কেন্জো বিশ্বের বিখ্যাত স্থাপত্যবিদের মধ্যে একজন। স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করার উদ্দেশ্য হলো সমগ্র বিশ্ব থেকে পারমাণবিক অস্ত্র শেষ হয়ে যাক এবং চারিদিকে শান্তি বজায় থাকুক। তার সাথে পারমাণবিক বোমা হামলায় নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করার জন্য তৈরি করা হয়েছিল।

এই স্মারকের শিখা শান্তির প্রতীক হওয়ায় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে জ্বালানো হয়। 1994 সালে হিরোশিমাতে আয়োজিত হওয়া এশিয়ান গেমসে স্মারক শিখা জ্বালানো হয়েছিল।

Advertisement


  • Advertisement