Advertisement

আইক্রীমের বিক্রি যত বাড়বে হত্যাও তত বাড়ে, এর পেছনের কারণ হলো এই

author image
2:59 pm 22 Aug, 2017

Advertisement

বহুদিন ধরে আমেরিকার পরিসংখ্যান ও বিজ্ঞান ফোরামে আইসক্রীম বিক্রি এবং হত্যার সংখ্যার মধ্যে কি সম্পর্ক রয়েছে সেটা নিয়ে আলোচনা করছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী যে সমস্ত দিন আইসক্রীমের বিক্রি বেশি হয়, সেই সমস্ত দিন হত্যার সংখ্যাও বেড়ে যায়। কিন্তু প্রশ্ন হলো যে এই দুটি বিষয়ের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ থাকলেও এটা কি আসল কারণ ?

শুধুমাত্র হত্যা নয় যে দিন আইসক্রীমের বিক্রি বেশি হয় সেইদিন সুইমিং পুল এবং নদীতে ডুবে যাওয়ার ঘটনা ঘটে। এরফলে প্রশ্ন উঠছে যে আইসক্রীমের মধ্যে কি কোনও উত্তেজিত পদার্থ রয়েছে যেটা হত্যা করার জন্য প্ররোচিত করে ? অথবা এর মধ্যে কোনও মাদকের জিনিস রয়েছে যেটা খাওয়ার পর সকলে ডুবতে যায়।


Advertisement

2009 সালে নিউ ইয়র্ক টাইমস আমেরিকার সেন্টার অফ্ ডিজিস কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেশনের দ্বারা করা অধ্যায়নে বলা হয়েছিল গ্রীষ্মকালে হত্যার সংখ্যা বেড়ে যায়। এখানে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়কাল হলো গ্রীষ্মকাল। নিউ ইয়র্ক টাইমস নিজেও পুলিশ বিভাগ পরিসংখ্যান বিবেচনা করে এটাকে ঠিক বলেছে। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষের কাছে আইসক্রিম এবং হত্যাকাণ্ডের মধ্যে সম্পর্ক দেখার ধারণাটি বাজে ধারণা বলে মনে হয়।

বস্তুত, যখন তাপমাত্রা বেড়ে যায় তখন বেশিরভাগ লোক বাইরে বেরোয়ে। তখন সবাই আইসক্রীম পার্লার, সুইমিং পুল এবং পার্কে যায়। সেই সময় চোর, মাদক নেশাকারীরা এই সমস্ত জায়গায় যায়। সেইসময় চুরির ঘটনা বেশি হয় একইসাথে হত্যার ঘটনাও বেশি হয়।

এই সময় ডুবে যাওয়ার মতো ঘটনা ঘটে। গরমে মানুষ বেশি সুইমিং পুল এবং নদীতে স্নান করতে যায়। তখন ডুবে যাওয়ার ঘটনা বেশি হয়। তাহলে এর থেকে বোঝা যাচ্ছে আইসক্রীম এবং হত্যাকান্ডের মধ্যে যোগাযোগ রয়েছে। কিন্তু প্রথমটি দ্বিতীয়টির কারণ নয়। জীবনে বহুবার মনে হয় দুটি ঘটনা একসাথে যুক্ত এবং এরপর নির্ধারণ করে আমরা সিদ্ধান্ত নিই। যেটা বহুবার ভুল হয়ে। বিশেষজ্ঞদের মতে দুটি বিষয়কে সংযুক্ত না করে ভালোকরে সেটা বোঝার চেষ্টা করুন।

Advertisement


  • Advertisement