আমরা সবসময় ‘OK’ শব্দটি ব্যবহার করি, কিন্তু এর উত্পত্তি কিভাবে হয়েছে জানেন ?

author image
1:30 pm 1 Aug, 2017

Advertisement

স্মার্টফোন আসার পর মোবাইল দিয়ে ম্যাসেজ করা আমাদের অভ্যাস হয়ে গেছে, এই অভ্যাস আমাদের পুরো ভাষাকে পরিবর্তন করে দিয়েছে। আমরা আমাদের বেশিরভাগ সময় ম্যাসেজ করে ব্যায় করি। আমরা যেটা সবসময় লিখি সেটা মুখেও বলতে অভ্যস্ত হয়ে পড়ি। OMG, LOL, Plz এই ধরনের শব্দ শুধুমাত্র ম্যাসেজ করার সময় লিখি তা নয়। কথা বলার সময়ও আমরা এই ধরনের শব্দ ব্যবহার করি।

এই রকমই একটি শব্দ রয়েছে যেটা মেসেজিং ও ফোনের আগে থেকেই ব্যবহার হয়ে আসছে। কিন্তু বেশিরভাগ লোক এই শব্দটির অর্থই জানে না। কোথা থেকে শব্দটি এসেছিল ? কিভাবে প্রচলিত হয়েছিল? এই সম্বন্ধে অনেকেই জানে না। কিন্তু অজান্তে এই শব্দগুলি মুখে চলে আসে।

‘OK’ শব্দটি আমরা সবসময় কথা বলার সময় ব্যবহার করি। এই শব্দটি খুবই সাধারণ সবসময় আমরা ব্যবহার করি। আসুন এবার জানি কোখা থেকে এই শব্দটির উত্পত্তি হয়েছে।



OK শব্দটি শুরু হওয়ার অনেক কাহিনী রয়েছে। বলা হয় যে 1839 সালে লেখকদের মধ্যে নতুন নতুন শব্দের প্রচলন হয়েছিল। সেগুলির মধ্যে হলো OW ‘oll wright’ (all right) এবং OK ‘oll korrect’ (All Correct)। এর মধ্যে OW প্রচলন বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু OK খুব ভালোভাবে প্রচলিত হতে থাকে।

কিন্তু প্রকৃতি-তত্ত্বজ্ঞ এলেন রিড বলেছেন, OK শব্দের উত্পত্তি হয়েছিল ইউরোপের গৃহযুদ্ধের সময়। এটা বিস্কুটের আরেকটা নাম ছিল। টেলিগ্রাফে ব্যবহার হওয়া ওপেন কি হিসাবে ব্যবহার করা হতো।

OK শব্দটি শুরু নিয়ে আরেকটি কাহিনী প্রচলিত আছে। কয়েকজন মনে করেন ইংল্যান্ডের অষ্টম প্রেসিডেন্ট মার্টিন ভ্যান বুরেনের প্রচারাভিযানের সময় এই শব্দটি প্রচলিত হয়। নিউ ইয়র্কের প্রাচীন কিন্জারহুক তাঁর হোমটাউন ছিল। তিনি সেটাকে ‘ওকে’ বলতেন ‘। ভোট ফর ওকে ‘ ছিল তাঁর স্লোগান।


Advertisement

অনেকে মনে করেন এই শব্দটি আধ্যাত্মিকতাকর মুদ্রা। এই মুদ্রা হলো অধ্যায়নের প্রতীক। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই মুদ্রায় ভগবান বুদ্ধকে দেখা যায়।


  • Advertisement