জলদস্যুদের থেকে বাঁচার জন্য 10 দিন পর্যন্ত অন্ধকারে রাখা হয়েছিল এই জাহাজটি

author image
1:48 pm 9 Aug, 2017

Advertisement

জাহাজে করে অস্ট্রেলিয়া থেকে দুবাই এর দিকে যাওয়া যাত্রীদের ছুটির দিনগুলি এতটাই ভয়ঙ্কর ছিল যার কথা তারা কল্পনাও করতে পারেন নি। সি-প্রিন্সেস নামের এই জাহাজটি সিডনি থেকে দুবাইয়ের দিকে যাচ্ছিল। এই জাহাজে প্রায় 2 হাজার লোক 104 দিনের যাত্রায় বেরিয়েছিলেন, কিন্তু এরই মধ্যে সোমালিয়ার ডাকাতদের ভয়ে এই জাহাজটি 10 দিনের জন্য ব্ল্যাক আউট হয়ে গিয়েছিল।

অস্ট্রেলিয়ান মিডিয়ার বিশেষজ্ঞ ক্যারোলিন জেসিঙ্কসেকী বলেছেন, সোমালি জলদস্যুদের কার্যক্রমের জন্য খ্যাত সামুদ্রিক এলাকায় পৌছানোর পর জাহাজের ক্যাপ্টেন আসন্ন বিপদ সম্পর্কে সচেতন হয়ে গিয়েছিলেন। এরপর ক্যাপ্টেন যাত্রীদের জন্য একটি সতর্কতা জারি করেন।সতর্কতা জারি করার পর জাহাজের সমস্ত সাটার এবং পর্দা বন্ধ করে দেওয়া হয়। জাহাজের লাইটও কয়েকদিন বন্ধ করে রাখা হয়।



জাহাজে উপস্হিত যাত্রীরা বলেছেন, জাহাজে বিনোদনের জন্য ম্যাজিক শো, লাইভ সঙ্গীত এবং নাইটক্লাবের মতো সুবিধা ছিল। কিন্তু সতর্কবার্তা জারি করার পর সেই সমস্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়। আত্রমণের আশঙ্কা দেখতে পেয়ে জাহাজের কর্মচারীরা যাত্রীদের ড্রিলের প্রস্তুত করতে থাকেন যাত্রীদের তাদের কামরায় পাঠানো হয়।


Advertisement

এই ড্রিলে যাত্রীদের নিজেদের নিরাপদ রাখতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছিল। এই ভ্রমণে যাত্রীদের ভীতিজনক পরিস্হিতিতে 10 দিন পর্যন্ত অন্ধকারে থাকতে হয়েছিল। এই সফরের জন্য যাত্রীরা 50 হাজার ডলার (33 লক্ষ টাকা) ব্যয় করছিলেন, কিন্তু তাদের 10 দিন পর্যন্ত সাধারণ সুবিধা থেকে বঞ্চিত থাকতে হয়েছিল।


Advertisement

এই বছরের মার্চ মাসে সশস্ত্র সোমালি জলদস্যুরা একটি বাণিজ্যিক জাহাজ হাইজ্যাক করে। কিন্তু পরে এটি কোনো মুক্তিপণ ছাড়া ছেড়ে দেওয়া হয়। সোমালিয়ার সামুদ্রিক এলাকায় গত 12 বছরের মধ্যে 6 বার জাহাজ হাইজ্যাক করার চেষ্টা করা হয়েছে।


  • Advertisement