Advertisement

সমুদ্রে ভাসমান ‘ভুতুড়ে শহর’, এই কারণে রহস্যময়

author image
11:48 am 7 Nov, 2017

Advertisement

হাজার হাজার বছর আগে সমুদ্রে ভাসমান, এই রহস্যময় শহরটিকে ভুতুড়ে বলে পরিচিত। এখনও পর্যন্ত শহরটি আবিষ্কৃত হয়েনি। কিন্তু নতুন প্রযুক্তি দ্বারা খোঁজা হয়েছে জনসংখ্যায় পরিপূর্ণ সমুদ্রের মাঝখানে ভাসমান এই শহরের রহস্য দ্বারা প্রত্নতত্ত্ববিদও বিস্মিত।

প্রশান্ত মহাসাগরে মাইক্রোনেশিয়া দ্বীপপুঞ্জের কাছে অবস্হিত পন্হেপী-র কাছে অবস্হিত পাতার উপর ভাসমান ন্যান মাদোল পাওয়া গেছে। পুরাতত্ত্ববিদগণ নতুন প্রযুক্তির সাহায্যে স্হানটি সম্পূর্ণভাবে আবিষ্কার করেছেন। এই শহরের তুলনা আটলান্টিস শহরের সাথে করা হচ্ছে। এই বিষয়ে, প্রত্নতাত্ত্বিকরা প্রশ্ন করছেন সভ্যতা থেকে দূরে সমুদ্রে ভাসমান এই শহরটি কারা এবং কেন বানিয়েছিল?


Advertisement

নায়ান মাদল অর্থ হলো ‘স্পেসের মধ্যে’ জর্জ কর্নিস, যিনি এটি অনুসন্ধান করেন, তিনি বলেছেন যে, পন্হেপী উপকূলে অদ্ভুত কিছু হয়েছিল। একই আকারের প্রায় 100 টি ছোট দ্বীপ রয়েছে। এর মানে কি, এটি পরিষ্কার নয়। স্যাটেলাইট ইমেজ অনুযায়ী, এটা রিমোট এরিয়া যেখানে যাওয়া সম্ভব নয়। কারণ এটা লস এঞ্জেলস থেকে 2500 মাইল এবং প্রশান্ত মহাসাগরে ওশেনিয়া থেকে 1600 কিমি দূরে অবস্হিত।

প্রত্নতাত্ত্বিক ডঃ কেরেন বেলিংগারের মতে, উপগ্রহ চিত্র দেখার পর বোঝা যাচ্ছে এখানে রয়েছে 25 ফুট উচ্চ এবং 17 ফুট দেওয়াল। তিনি আরো বলেন যে কয়েকটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, এটি একটি ভুতুড়ে স্হান।

চিত্র: মেট্রো

Advertisement


  • Advertisement