Advertisement

বলিউড অভিনেত্রীদের চরিত্র এই চিত্রাঙ্কনগুলির দ্বারা অনুপ্রাণিত

author image
1:26 pm 18 Nov, 2017

Advertisement

প্রায় যুগ যুগ ধরে চলে এসেছে ভারতীয় চিত্রকলার ঐতিহ্য। আজও এই ঐতিহ্য অব্যাহত। বছরের পর বছর ধরে, ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতারা তাদের সিনেমায় অভিনেত্রীদের সুন্দরভাবে প্রদর্শিত করেছেন। আশির দশকে সিনেমায় রূপালী পর্দায় আপনার শরীরের অংশ প্রদর্শন করা কঠিন ছিল। বড় পর্দায় অভিনেত্রী, মন্দিকিনী এবং জীনা তামানকে ব্লাউজ ছাড়া শাড়ি পড়তে দেখা গেছে। এখানে ভারতীয় অভিনেত্রীদের কয়েকটি ছবি দেওয়া হলো সেগুলি ভারতীয় চিত্রকলা দ্বারা অনুপ্রাণিত।

যোধা

যোধা আকবর হলো মুঘল সম্রাট আকবর এবং হিন্দু রাজকন্যা যোধার প্রেমকাহিনী গল্প। এই যাত্রায় বিশ্বাস, বন্ধুত্ব এবং প্রেম বিবাহ বন্ধনের সাথে আসে। ঐশ্বরিয়ার চরিত্রে তাঁর স্বদেশী, শান্ত দিকটি ফুটে উঠেছে। পাশাপাশি যোধা একজন যোদ্ধা ছিলেন। ষষ্ঠদশ শতকে রাজপুত মহিলারা প্রচুর গহনা পড়তেন। যোধার অলঙ্কার শিল্পীর এই চিত্রাঙ্কন দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিল। এই চিত্রটি অঙ্কন করেছিলেন শ্রী গিরধর। ভারত সরকার কর্তৃক পুরস্কার দেওয়া হয় তাঁকে। মূগল যুগের গহনা নির্মাণের জন্য 200 কর্মী 600 দিন ধরে কাজ করেছিলেন।

গাজ গামিনী

এম.এফ হুসাইনের গজ গামিনী এখনো মনের মধ্যে নতুনভাবে রয়েছে। গাজ গামিনী চিত্র উজ্জ্বল লাল পটভূমিতে একজন নারী নৃত্য করছেন। তার সাথে সাদা হাতি তার শুঙ্গ তুলে রয়েছে। একই নামের চলচ্চিত্রে দেখা যায় মধুরী দীক্ষিতকে।

মস্তানী

সঞ্জয় লীলা ভাসলি এর ঐতিহাসিক রোম্যান্স ফিল্ম “বাজিওরাও মস্তানী” দীপিকা পাডুকোনী, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবং রণবীর সিং প্রধান ভূমিকা ছিলেন। রণবীর পেশোয়া বাজিরও, দীপিকা মস্তানী এবং কন্যা প্রিয়াঙ্কার ভূমিকায় ছিলেন। এই প্রজন্মের দুজন মহিলা চলচ্চিত্রে অসাধারণ নৃত্যের মাধ্যমে তাদের সেরা পারফরম্যান্স দিয়েছেন।


Advertisement

মস্তানী বুন্দেলখন্ড প্রদেশের বুন্দেল রাজবংশের রাজা ছত্রশালের কন্যা ছিলেন। দীপিকার পুরো লুকটি এই চিত্র দ্বারা অনুপ্রাণিত।

ভূজের আয়না মহলে মস্তানির ছবি।

কাশিবাঈ

‘বাজিরও মস্তানী’তে বাজিরও প্রথম স্ত্রী ছিলেন কাশিবাঈ। বলা হয়েছে যে প্রিয়াঙ্কার চরিত্র রত্নগিরির তলসিয়র গ্রামের প্রকৃত কাশিবাঈ থেকে অনুপ্রাণিত। আজও, কাশীবাঈর ভাইয়ের বংশধর এখনও তাদের ঐতিহ্যপূর্ণ পুরোনো বিশাল বাড়িতে থাকেন।

রানী পদ্মাবতী

2017 সালের সবচেয়ে বিতর্কিত সিনেমা ‘পদ্মাবতী’। এবার পয়লা ডিসেম্বর ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি নিয়ে নতুন সংশয় তৈরি হল। পয়লা ডিসেম্বর ছবির মুক্তি না আটকালে দীপিকার নাক কেটে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল রাজপুত কর্ণি সেনা। পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিরও শিরশ্ছেদের হুমকি দিয়েছিল তারা। বির্তকের পাশাপাশি পদ্মাবতী ট্রেলার এবং ঘুমার গান সকলের দ্বারা প্রশংসিত হয়। কিন্তু এখনও এই সিনেমা দেখতে আরো কিছু দিন অপেক্ষা করতে হবে।

মহম্মদ জয়সী কবিতা পদ্মাবত থেকে পদ্মাবতীর সম্পর্কে জানা যায়। এই ঐতিহাসিক কবির মতে পদ্মাবতীর জন্ম হয়েছিল শ্রীলঙ্কার সিমাল ডিভিপাতে ত্রয়োদশ এবং চতুর্দশ শতকের মাঝামাঝি।

Advertisement


  • Advertisement