Advertisement

প্রতি মরসুমে রঙ পরিবর্তন করে এই নদীটি

author image
2:17 pm 21 Jul, 2017

Advertisement

প্রকৃতির একটি নিজস্ব সৌন্দর্য রয়েছে। মানুষ যতই উন্নত হোক না কেন যে কখনও প্রকৃতিকে সম্পূর্ণভাবে বুঝতে পারবে না। আজ আমরা আপনাদের এমন একটি নদীর সম্পর্কে বলবো যে প্রকৃতির কাছ থেকে পেয়েছে ভিন্ন সৌন্দর্য। সামনে থেকে দেখে কল্পনা করা সম্ভব নয়।

এই নদীটি হলো কলাম্বিয়ার কানো ক্রিস্টাল। এই নদীর বিশেষত্ব হলো যে এই নদী ঋতু পরিবর্তনের সাথে নিজের রঙও পরিবর্তন করে। নদীর রঙ থাকে নির্দিষ্ট রকমের। লাল, নীল, হলুদ, সবুজ এবং কমলা রঙও হতে পারে। সেজন্য এই নদীটিকে ‘লিকুয়েড রেনবো’ বলা হয়।

বছর 2000-সালের এর আগে এখানে হিংসাত্মক ক্রিয়াকলাপের সঙ্গে যুক্ত গোষ্ঠী সক্রিয় ছিল। সেইকারণে এই নদীটির আশেপাশের এলাকাকে সুরক্ষিত মনে করা হতো না। কিন্তু বর্তমানে এখানে 30 কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকা কলাম্বিয়ার সেনাবাহিনীর অধীনে রয়েছে। আপনি এখানে এখন নিরাপদে ঘুরতে পারবেন।


Advertisement

কয়েকজন মনে করেন যে এই নদীটির রঙ শেওলা বা মস থেকে আসে। কিন্তু এটা সত্য নয়। বস্তুত, এই রকম হওয়ার কারণ হলো Macarenia Clavigera নামের একটি গাছের উপস্হিতি। এই গাছটি নির্দিষ্ট মরসুমে, নির্দিষ্ট জলসীমা এবং সূর্য আলো পাওয়ার জন্য রঙ পরিবর্তন করে। নদীর সৌন্দর্য শুধুমাত্র জুন থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত দেখতে পারবেন। জানুয়ারী থেকে মে মাস পর্যন্ত প্রচন্ড গরম থাকার কারণ বন্ধ থাকে।

সাধারণত, এই নদীর রঙ হালকা বা গাঢ় গোলাপী এবং হালকা বা গাঢ় লাল হয়। তবে কখনও কখনও নীল, হলুদ, কমলা এবং সবুজ রঙও হয়ে যায়। বিশ্বজুড়ে কম জনপ্রিয় হওয়ার কারণে বিদেশী পর্যটক এখানে খুবই কম আসেন।

প্রকৃতির এই সৌন্দর্যকে বজায় রাখার জন্য কিছু নিয়মও তৈরি করা হয়েছে। যেমন একটি গ্রুপের মধ্যে সাত জনের বেশি যেতে পারবে না। এক দিনে 200 জনের বেশি জনকে এখানে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়ে না।

Advertisement


  • Advertisement