Advertisement

100 বছর পর সমাধান হলো অ্যান্টার্কটিকার রক্ত নদীর রহস্য

author image
1:22 pm 28 Jul, 2017

Advertisement

অ্যান্টার্কটিকাতে জীবন অতিবাহিত করা খুবই কঠিন। এটি এমন একটি স্হান যেখানে মানুষের পক্ষে থাকা সম্ভব নয়। এই স্হানে লুকিয়ে রয়েছে অনেক রহস্য। এই রকমই একটি রহস্যময় স্হান হলো ব্লাড ফলস।

এটা আসলে একটি জলপ্রপাত, যেখানে থেকে বেরোয়ে লাল রঙের জল। প্রথম আবিষ্কার করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ভূবিজ্ঞানী গ্রিফিথ টেলর। যখন তিনি এটা প্রথম আবিষ্কার করেন তখন তাঁর মনে হয় যে এই লাল রঙ এখানে উপস্হিত শৈবালের কারণে রয়েছে।

তবে এই তত্ত্ব 2003 ভুল প্রমাণিত হয়। সেই সময়ে আরেকটি গবেষণা পাওয়া যায় যে জলে আয়রন অক্সাইডের প্রাচুর্য রয়েছে, সেই কারণে এখানে জলের রঙ লাল।


Advertisement

ন্যাশনাল জিওগ্রাফির রিপোর্ট অনুযায়ী, এখন একটি নতুন তত্ত্বে এই রহস্যের সমাধান হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। এই তত্ত্ব অনুসারে, লাল রঙের এই জল বিশালকার পুকুর থেকে আসছে। জল যত জমতে থাকে তত তাপ ছাড়তে থাকে। এই তাপ চারিদিকে জমে থাকা বরফকে উত্তপ্ত করে। এই কারণে ব্লাড ফলস থেকে ক্রমাগত জল পড়ছে।

এই রহস্যের সমাধান কলোরাডো কলেজ এবং আলাস্কা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি নতুন গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। এই গবেষণায় বলা হয়েছে সেখানে উপস্হিত পরিস্হিতির কারণে লাল রঙের জল পড়ছে অনবরত।

অ্যান্টার্কটিকা হলো পৃথিবীর রহস্যময় স্হান। এখানে তাপমাত্রা এতটাই কম যে গবেষক এবং পেঙ্গুইনদের ছাড়া আর কোনও জীবনের খোঁজ পাওয়া যায় না। একজন গবেষক বলেছেন, অ্যান্টার্কটিকাতে লুকিয়ে রয়েছে একটি গোপন শহর, যা হারিয়ে যাওয়া অ্যাটলান্টিস শহরও হতে পারে।

Advertisement


  • Advertisement