বিশ্বের ক্ষুদ্রতম দেশ, যেখানে জনসংখ্যা মাত্র 27

12:33 pm 29 Oct, 2016


পৃথিবীতে এমন একটি দেশ রয়েছে যার জনসংখ্যা মাত্র 27. হ্যাঁ, ইংল্যান্ডের সাফোক উপকূল থেকে প্রায় 10 কিলোমিটার দূরে অবস্হিত এই দেশটির নাম হলো সিল্যান্ড। ধ্বংস হয়ে যাওয়া দুর্গটি অবস্হিত রয়েছে সমুদ্রের ওপর।দেশটিতে ইংরেজি ভাষা প্রচলিত এবং মুদ্রার নাম সিল্যানন্ড ডলার। তবে বাইরের কোনো দেশের  মুদ্রা এখানে চলে না।


এটি আসলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত একটি সমুদ্র বন্দর। জার্মান সেনারা যে কোনো সময় ইংল্যান্ড আক্রমণ করতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে ব্রিটিশ সেনাবাহিনী ইংল্যান্ডের উপকূলভাগে সমুদ্র দুর্গ বানানোর পরিকল্পনা করল। সে পরিকল্পনা থেকেই উপকূল থেকে 10 কিলোমিটার গভীরে বানানো হলো মউনশেল সি ফোর্ট। এখান থেকে শত্রু যুদ্ধ জাহাজগুলোর ওপর নজরদারি করা হতো। প্রয়োজনে শত্রু জাহাজে আক্রমণ পরিচালনার কাজও চলত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হলে অন্যান্য অসংখ্য দুর্গের সঙ্গে ব্রিটিশ সেনাবাহিনী এটাকেও পরিত্যক্ত ঘোষণা করে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটিশ দ্বারা নির্মিত এই দেশে বহু লোক নিজেদের অধিকার বসাতে শুরু করে। যাইহোক, 2012 সালে রায় বেটস নামে একজন লোক নিজেকে এই দেশের রাজা ঘোষণা করে দেন। রায় বেটসের মৃত্যুর পর এখন সিল্যান্ডের শাসনকর্তা তার ছেলে মাইকেল।

250 মিটার এলাকা জুড়ে অবস্হিত সিল্যান্ড রাফ ফোর্ট নামেও পরিচিত।

এই দেশে বসবাসকারী মানুষদের জীবনযাপন করা খুবই কষ্টকর। জরুরী রসদ তাদের কাছে উপলবদ্ধ থাকে না। বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মানুষ যখনই এই দেশের সম্পর্কে জানতে পারে তখনই তারা এখানে দান করতে শুরু করে যাতে এই দেশে বসবাসকারী মানুষের আর্থিক সাহায্য পেতে পারে।


সিল্যান্ড এখন পর্যটন কেন্দ্র রুপে পর্যটকদের কাছে যথেষ্ঠ আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে।

আপনাদের জানিয়ে দিই সিল্যান্ড এখনও আন্তর্জাতিক দেশ রুপে স্বীকৃতি লাভ করেনি। যেই কারণে এটা মাইক্রো-জাতির তালিকার অর্ন্তভুক্ত। 0.44 বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুুড়ে অবস্হিত ভ্যাটিকান সিটি বিশ্বের ক্ষুদ্রতম দেশ যেখানে জনসংখ্যা 800.

Discussions