একদল ভারতীয়দের মধ্যে বাঙালিকে খুঁজে বের করার 5টি উপায়

10:41 am 20 May, 2016


বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে বসলে তাদের পর্যবেক্ষণ করা হয়ত আপনার স্বভাবের মধ্যে পরে না, তবে একটু লক্ষ্য করলেই আপনার আশেপাশের মানুষের মধ্যে 1-2টি বিশেষ হাব-ভাব লক্ষ্য করবেন।

বিশ্বাস করুন, এই হাবভাব ও আচরণ সঠিক ভাবে লক্ষ্য করলেই একটি বাঙালিকে চিনতে পারা সহজতম কাজ। মাড়ওয়ারী, গুজরাতী বা কাশ্মীরি চেনা যতটা কঠিন, বাঙালী চেনা ততই সহজ, তাদের এই সবার থেকে আলাদা আচরণের জন্য। বাঙালীরা সচরাচর হাস্যরস প্রিয় হয় কিন্তু তিনি যে বাঙালি সেটা তিনি একবার বলবেনই। নীচের তালিকাটি পড়ে জানুন আরও কীভাবে বাঙালী চেনা যায়ঃ

1. ‘অবাঙালী’- এমন এক শব্দ যা কেবল বাঙালীরাই ব্যবহার করে।

গুজরাটি কে “গুজরাটি” বলা হয়, মাড়ওয়ারী কে “মাড়ওয়ারী” ও অসমীয়া কে “অসমীয়া” কিন্তু একজন বাঙালী, বাঙালী বাদে অন্য সব মানুষকে “অবাঙালী” বলতেই বেশি পছন্দ করে। এই শব্দটি শুনলে আপনার বুঝতে অসুবিধা হতেই পারে যে মানুষটি আসলে কোন প্রদেশের।

অন্য কোন ধর্ম বা জাতির হলেও বাঙালীদের কাছে তারা “অবাঙালী”। বাঙালিরা অনেক জিনিসের ক্ষেত্রেই প্রাসঙ্গিক বাক্য ব্যবহার করে থাকে আর এই ‘অবাঙালি’ তার মধ্যে শ্রেষ্ঠ উদাহরণ। সুতরাং হঠাত করে কেউ এই কথাটি বললেই আপনি বুঝতে পারবেন সে কোথাকার!

2. মধুর সমাপ্তি- রসগোল্লা।

বলা যেতে পারে ছোটবেলা থেকেই, যখন বাচ্চারা প্রথম খেতে শেখে বাঙালী বাবা-মায়েরা তাদের ছেলে-মেয়েদের খাওয়াদাওয়ার শেষে রসগোল্লা সেবনের বিভিন্ন স্বাস্থ্য উপকারিতার কথা শিখিয়ে থাকেন।

বাঙালী বিয়েবাড়িতেও খাওয়ার শেষ পাতে রসগোল্লা পরে। তবে এটা যে অতি দারুণ ও সুস্বাদু সেও আরেক ভাবার বিষয়। যাই হোক না কেন, খাওয়া শেষে বাঙালী একটি তুলতুলে রসগোল্লা খাওয়ার চেষ্টা করবেই। এবার যদি দেখেন কেউ মিষ্টির দোকানে ছুটছে তাহলে বুঝতেই পারবন। দেখলেন তো বাঙালিদের খুঁজে বের করা এমন কিছু কঠিন কাজ নয়।

3. সৌরভ গাঙ্গুলি কে নিয়ে অন্তত একবার কথা বলা চাই-ই

কোনো না কোনো এক সময় বাঙালীরা ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়াক সৌরভ গাঙ্গুলির নাম নেবেই। তিনি অবসর নেওয়ার পর, বাঙালীদের অনেকেই ক্রিকেট দেখা প্রায় বন্ধ করে দিয়েছেন।

একজন সাধারণ বাঙালী সৌরভ গাঙ্গুলির ওপর চাপানো অবিচার ও তাঁর ন্যায্য মর্যাদা নিয়ে কথা বলতে ভালবাসে, এবং প্রায় সকল দেশবাসী যখন তার হঠাত করে ভারতীয় ক্রিকেট দল থেকে বহিস্করণ নিয়ে কম বেশী খুদ্ব, বাঙালী কিন্তু এ বিষয় এখনো ভুলে যায়নি। অনেক বছর পেড়িয়ে এলেও বাঙালিরা কিন্তু এই বিষয়ে এখনো কথা বলেন।


ক্রিকেট সম্বন্ধে আলোচনা ও সৌরভ গাঙ্গুলির নাম নেওয়া মানেই বুঝতে ভুল করবেন না যে সে বাঙালী।

4. সাধারণ বাঙালী পুরুষের ভুঁড়ি থাকাই স্বাভাবিক

ভুঁড়ি অনেক পুরুষেরই থাকে, কিন্তু বাঙালীরা এই ব্যপারেও এগিয়ে। সেই পুরুষের বয়স আট হক বা আশি, একটু স্বাস্থ্য সচেতন হলেও, অল্পবিস্তর ভুঁড়ি থাকা মানেই সে বাঙালী। একদল সাস্থ সচেতন যুবকদের মধ্যে যদি দেখেন কারো পেট একটু বেরিয়ে আছে, বুঝে নিতে হবে তিনিই বাঙালি। হাস্যকর কথাটা হলো এই যে সেই ভদ্রলোকটাই হয়ত আপনাকে ব্যাম করার উপকারিতা ও শরীরচর্চা নিয়ে জ্ঞান দেবে। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি।

5. বংশ-গত হতে পারে, কিন্তু বেশিরভাগই চশমা পড়েন

কাকতালীয় হতে পারে বা বংশগত, বা হয়তো অন্য কোন কারণ, কিন্তু এক জোড়া চশমা ছাড়া বাঙালী খুঁজে পাওয়া প্রায় অসম্ভব। বলিউড সিনেমাতেই দেখুন না, সমস্ত বাঙালী চরিত্ররই পরনে এক জোড়া চশমা, তাও আবার হালফ্যাশনের নয়, পুরানো আমলের মোটা ফ্রেম এর।

সিনেমাতে যেমন বুঝবেন তিনি বাঙালি, বাস্তব জীবনেও এই সূত্র খাটে, যার ফলে “সানগ্লাস” পড়ার মতন অবকাশ আর থাকে না। এবার জেনে গেলেন নিজের দলের মধ্যে বাঙালী খুঁজে নেওয়া কত সোজা।

Popular on the Web

Discussions



  • Viral Stories

TY News