প্রতিদিন প্রাণায়ম করলে আপনার 15 টি লাভ হবে, জেনে নিন সেগুলি কি

1:53 pm 26 Nov, 2016


প্রাণায়ামের আক্ষরিক অর্থ হলো ভেতরের প্রাণ শক্তিকে বাড়ানো। প্রাণের অর্থ হলো শক্তি প্রদান করা। অন্যদিকে আয়ামের তিনটি অর্থ রয়েছে প্রথম হলো দিশা, দ্বিতীয় যোগনাসুর নিয়ন্ত্রণ, তৃতীয় প্রসারিত করা। এর সঠিক উত্তর হলো প্রাণকে সঠিক গতি প্রদান করাই হলো প্রাণায়াম।

প্রাণায়াম গভীর ভাবে নিংশ্বাস নেওয়ার পর আস্তে আস্তে নিংশ্বাস ছাড়তে হয়।

যারা প্রাণায়াম করছেন তাদের নিংশ্বাস নেওয়ার সময় একটা ধারণা রাখতে হবে যে তারা নিংশ্বাসের সাথে প্রাণ ও শ্রেষ্ঠতা নিচ্ছেন,আর নিংশ্বাস ত্যাগের মধ্যে দিয়ে ভেতরের অপূর্ণতা বেরোচ্ছে।

দৈনন্দিন প্রাণায়ামের 15 টি সুবিধা রয়েছে-

1. হৃদয়ের শক্তি

প্রাণায়ামের সাথে হৃদয় মজবুত হয়। এই প্রক্রিয়া রক্তচাপ কমানোর সাথে হৃদরোগ এড়াতেও সাহায্য করে।

2. ওজন নিয়ন্ত্রিত হয়

প্রতিদিন যারা প্রাণায়াম করেন তাদের ওজন নিয়ন্ত্রিত থাকে। অক্সিজেনের মাত্রা অতিরিক্ততার থাকার কারণে চর্বি কমতে সহায়ক হয়।

3. টেনশান কমে যায়

প্রতিদিন প্রাণযাম করলে টেনশান কম করা যায়। যার ফলে মানসিক চাপ কমে,আর হাইপারটেনশান থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। মানসিক চাপ কমানোর সেরা উপায় হলো প্রাণায়াম।

4. একাগ্রতা বৃদ্ধি পায়

ক্রমাগত প্রাণায়াম করলে মস্তিষ্কের একাগ্রতা আর স্থায়িত্বতা বৃদ্ধি পায়। অক্সিজেনের প্রাচুর্যতা রক্তকে গাঢ় করে। মন স্হির করতে সাহায্য করে। মানসিক উত্তেজনাকে নিয়ন্ত্রিত করে স্মৃতিশক্তি বাড়ায়।

5. অনাক্রম্যতার ক্ষমতা বাড়ায়

যারা প্রতিদিন প্রাণযাম করেন তাদের ইমিউন সিস্টেম অন্যদের চেয়ে অধিক শক্তিশালী হয়। অর্থাত রোগের আক্রমণ করতে্ সহায়ক হয়।

6. পাচনতন্ত্র শক্তিশালী হয়

প্রাণায়ামের কারণে পাচনতন্ত্র ভালো থাকে। যোগব্যায়ামের এই প্রক্রিয়া হজমের ক্ষমতা বাড়ে। যার ফলে অ্যসিডেটী,গ্যাস্ট্রিক সহ পেটের অন্যান্য সমস্যার নিরাময় হয়।

7. সুন্দর ত্বক

প্রাণায়াম শুধুমাত্র আপনার শরীর সুস্হ রাখে তা নয় আপনার ত্বককেও সুন্দর রাখে। যারা প্রতিদিন প্রাণায়াম করেন তারা বলিরেখা থেকে পরিত্রাণ পাবেন সঙ্গে চোখের নিচের কালিও কমে যায়।

8. শরীরের অতিরিক্ত তাপমাত্রা হ্রাস পায়

যাদের অতিরিক্ত ঘাম হয় তারা প্রাণায়াম করলে উপকৃত হবেন। এটি শরীরের বাড়তি উষ্ণতা কমিয়ে দেয়।

9. নিংশ্বাস নেওয়ার কষ্টও দূর করে

প্রাণায়াম ফুসফুসের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। ফুসফুস সুস্হ থাকলে নিংশ্বাস নেওয়ার সমস্যার সমাধান হয়।

10. বিষণ্নতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়

প্রাণায়াম করলে দুশ্চিন্তা ও বিষণ্নতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। কোনও ব্যাক্তি যদি প্রতিদিন প্রাণায়াম করেন তাহলে দীর্ঘসময় ধরে চলা বিষণ্ণতা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

11. ডিটক্সিফিকেসন

প্রাণায়াম শরীরে রাসায়নিক উপাদানের প্রভাব হ্রাস করে শরীরকে সুস্হ রাখতে সাহায্য করে। এর ফলে এলার্জিও হয় না।

12. সর্দি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়

নিয়মিত প্রাণায়ম করলে সর্দি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। যাদের সাইনাসের অভিযোগ রয়েছে তারা প্রাণায়াম থেকে উপকৃত হতে পারেন।

13. চুলের সমস্যার সমাধান হয়

চুল পড়ার সমস্যার থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। নিয়মিত প্রাণায়ান করলে এই ধরনের সমস্যা থেকে প্রতিকার পাওয়া যায়।

14. পুরুষত্ব বাড়ে

সন্তানহীনতার সমস্যা দূর হয়। পরিবারের সাথে সুখী জীবন যাপন করতে পারেন।

15. আধ্যাত্মিক বিকাশ হয়ে

প্রাণায়ামের ফলে আধ্যাত্মিকতার বিকাশ ঘটে। ধ্যান করার পক্ষে সহায়ক।

Discussions