সস্তায় বাড়ি কেনার সুযোগ, আবেদন করুন অনলাইনে

6:36 pm 4 Nov, 2016


এইবার থেকে বাড়ি কিনুন সস্তায়। প্রধানমন্ত্রী বাসভবন যোজনা অনুযায়ী সস্তায় বাড়ি কেনার সুযোগ দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া।

সস্তায় বাড়ি কেনার ইচ্ছুকরা কমন্ সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে আবেদন করতে পারেন। সারাদেশে প্রায় 60 হাজার কমন্ সার্ভিস সেন্টার রয়েছে। এর জন্য মাত্র 25 হাজার টাকা শুল্ক রাখা হয়েছে।

দেশের শহরাঞ্চলে প্রায় 2 কোটি ঘর বানাবে কেন্দ্রীয় সরকার।

এই সেবা চালু করার পর লোকেদের ঘর বানানোর জন্য আর স্থানীয় সরকারী অফিস বা সরকার কর্তৃপক্ষের পেছন পেছন ঘুরতে হবে না এবং সরকারের এই
যোজনার সুবিধা কোনও বাধা ছাড়াই পাওযা যাবে।

এইভাবে আপনার বাড়ির স্বপ্ন পূরণ হতে পারে

1. সম্পূর্ণ বিবরণের জন্য, কমন্ সার্ভিস সেন্টারে যান।

2. অনলাইন ফর্মটি পূরণ করুন।

3. আবেদনকারীকে একটি রসিদ দেওয়া হবে, যার মধ্যে আবেদনকারী ছবি থাকবে।

4. এই রসিদের সাহায্যে আবেদন স্টেটাস পাওয়া যাবে।

5. এই যোজনার লাভ নেওয়ার জন্য আধার কার্ড জরুরী।

6. যাদের আধার কার্ড নেই তারা যাচাইকরণ করার পরই বাড়ি কিনতে পারবেন।

প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন প্রকল্পের অধীনে 2005-14 পর্যন্ত মাত্র13.70 লক্ষ দরিদ্রকে ঘর বরাদ্দ করা হয়েছিল। যেখানে মোদী সরকার এক বছরের মধ্যে শহরের 11 লক্ষ দরিদ্রদের ঘর জুগিয়েছেন। শহরাঞ্চলে প্রায় 2 কোটি ঘর বানানোর পরিকল্পনা করেছে সরকারের।

সস্তা বাড়ির জন্য জরুরী শর্তগুলো হলো।

এই যোজনা হলো নিম্ন আয়ের বা সমাজের অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল ব্যক্তিদের জন্য। নিম্ন আয়ের বিভাগে রয়েছে, যাদের বার্ষিক আয় 6 লক্ষেরও কম। আর যাদের বার্ষিক আয় 3 লক্ষ টাকারও কম তাদেরকে রাখা হয়েছে ইকোনমিক উইকার সেকসনে।

এছাড়াও, এই প্রকল্পের অধীনে যে কোনো ধর্ম বা বর্ণের নারী সস্তা ঘরের জন্য আবেদন করতে পারেন। পুরুষ আবেদনকারীর তুলনায় নারী আবেদনকারীকে বেশি অগ্রাধিকার দেওযা হবে। তফসিলি জাতি ও উপজাতিদের মানুষ সাশ্রয়ী মূল্যের বাড়ির জন্য আবেদন করতে পারেন।

এই প্রকল্পের লাভ সবাই পেতে পারেন। সরকার এর জন্য প্রস্তুত। সস্তা ঘর কেনার জন্য সরকারের তরফ থেকে দেওয়া হবে 6 লক্ষ টাকা ঋণ। সুদ দিতে হবে 6.5 শতাংশ। যা বর্তমান হোম লোনের থেকে 10 শতাংশ কম।

সস্তা ঘর কেনার জন্য মানুষকে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। Topyaps দল কমন্ সার্ভিস সেন্টার খোজার চেষ্টা করেছিল কিন্তু এখনও পর্যন্ত এই লিঙ্কটি আন্ডার কন্যট্রাকসন দেখাচ্ছে। অন্যদিকে গৃহায়ন মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে এই যোজনার সম্বন্ধে কোনও তথ্য দেওয়া হয়েনি।

Discussions