প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পর্রীকর সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পুরো কৃতিত্ব দিলেন প্রধানমন্ত্রীকে

5:28 pm 12 Oct, 2016


পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের বেশিরভাগ কৃতিত্ব প্রধানমন্ত্রীকে দিলেন মনোহর পর্রীকর। সন্ত্রাসীদের শিবিরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের করার প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে প্রশংসা করেছেন পর্রীকর। তবে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরে জঙ্গি দমন অভিযানকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য পুরণ করার জন্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ করছে বিরোধীরা। তারই মাঝখানে প্রধানমন্ত্রীকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পুরো কৃতিত্ব দিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

মুম্বাই এর “স্ট্রেথিংগ ইন্ডিয়ান ডিফেন্স কেপিব্যালেটি” অনুষ্ঠানে মনোহর পর্রীকর বলেন শান্তির উপর ভিত্তি করে আমাদের প্রতিরক্ষা নীতি রযেছে। যুদ্ধে খরচ এবং অন্যান্য সমস্যা হয়। ভারত কখনও অন্য কোন দেশের উপর শাসন করেনি, কিন্তু এটা আমাদের দুর্বলতা নয়।

তিনি বলেন, মানুষের মধ্যে একটা হতাশা ছিল সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর সবাই খুশি। আপনাদের সবাইকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, সরকার সিদ্ধান্ত নেয়। সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের রাতে আমি ঘুমায়নি। এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য সাহসের দরকার হয়। আমাদের বন্ধুত্বকে দুর্বলতা মনে করা হয়েছিল।

অন্যদিকে মনোহর পর্রীকরের বিবৃতি নিয়ে তার সমালোচনা করতে শুরু করেছে বিরোধীরা। আম আদমী পার্টির নেতা আশুতোষ টুইট করে বলেন, সেনাদের কৃতিত্ব দেওয়ার বদলে বিজেপি নেতাদের মধ্যে কৃতিত্ব নেওয়ার টেক্কা চলছে।

জেডি-ইউ নেতা কেসি ট্যগী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজে এই ধরনের জিনিস না করার কথা বলেছেন। ইউপিতে নির্বাচন নিয়ে এই বিবৃতি করা হয়েছে।

আরএলডি র নেতা অজিত সিং বলেছেন, এর ওপর রাজনীতি করা উচিত নয়। এর আগেও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে এর কৃতিত্ব নেওয়া উচিত নয়। তার সাথে তিনি বলেন রাহুল গান্ধির এই রকম ভাষা ব্যবহার করা উচিত নয়।

প্রসঙ্গত, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়ইনি বলে পাকিস্তানের অস্বীকার উড়িয়ে মনোহর পর্রীকর বলেছিলেন, অস্ত্রোপচারের পর অ্যানেসথেশিয়ায় আচ্ছন্ন রোগীর মতো আচরণ করছে ওরা!

Discussions