কলকাতায় দুষ্টু–মিষ্টি প্রেমের ৬টি নিরিবিলি ঠিকানার হাল–হদিশ

4:32 pm 20 May, 2016


বাঙালি মাত্রই রসিক আর প্রেমিক। বুঝতে পেরেছি আপনিও প্রেমে পড়েছেন। আর প্রেমিকাকে নিয়ে নিজের শহরেই ঘোরার ঠিক জায়গাটি খুঁজছেন। আপনারা কী ধরণের প্রেমিক–প্রেমিকা সেটা বুঝে নিয়ে, এখান থেকে শুধু সেই জায়গাটি বেছে নিন। আপনার শহর আপনাকে ভালোবাসে। আপনার খুশি ও কল্পনার যত্ন নেয়। কী বিশ্বাস হচ্ছে না? এখানে আপনার নিজের শহর কলকাতায় কয়েকটি রোম্যান্টিক ঘোরার জায়গার সন্ধান দেওয়া হল। এবার শুধু বেড়িয়ে পড়ার পালা।

1. চাং ওয়া

যদি আপনি ও আপনার সঙ্গিনী খেতে ভালোবাসেন, তবে এই প্রাচীন চিনে রেস্তোরাঁটি আপনাদের জন্যে একেবারে ঠিক ঠিকানা। এর মাতাল করা কেবিন আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছে। চাং ওয়া–র স্পেশাল চিকেন, ফ্রায়েড চিলি পর্ক এবং ক্যান্টোনিস নুডলস–এর সঙ্গে সমানতালে চলুক রোম্যান্টিক কথাবার্তা। রয়েছে জিভে জল আনা সব রেসিপি।

যা প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে হাত বদল হয়ে এখন আপনাদের পাতে। চেখে দেখুন চিকেন মাশরুম, হট অ্যান্ড স্পাইসি চিলি চিকেন, চিকেন উইথ ব্যাম্বু সুট এবং অবশ্যই প্রণ হাক্কা চাউমিনের মতো জনপ্রিয় সব খাবার। সঙ্গে পানীয় আছে বইকি, অবশ্যই যদি আপনি চান।

2. প্রিন্সেপ ঘাট

যদি আপনারা সত্যিকারের ‘রোম্যান্টিক’ প্রেমিক–প্রেমিকা হন, তবে এই জায়গা আপনাদের ভালোবাসার বাঁধনে বেঁধে ফেলবে। স্ট্র্যান্ড রোডের কাছেই প্রিন্সেপ ঘাট শহরের অন্যতম প্রাচীন বিনোদনের জায়গা হিসেবে পরিচিত।

হুগলি নদীর তীরে জেমস প্রিন্সেপ–এর স্মৃতিতে এটি তৈরি। সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের সময়টা আদর্শ। অবশ্য প্রেমিক–প্রেমিকাদের জন্যে সূর্যাস্তের সময়টাই একদম ঠিক। আর সূর্যাস্তের পর নদীতে নৌকায় ভাসতে ভুলবেন না। নদীর ওপরে ঝুলে বিদ্যাসাগর সেতু। যা প্রিন্সেপ ঘাটের ব্যাকগ্রাউন্ডকে দিয়েছে অসাধারণ সৌন্দর্য।

3. নলবন বোটিং কমপ্লেক্স

আপনারা মজা করতে ভালোবাসলে এই জায়গা আপনাদের জন্যেই তৈরি। পাগল করা ভিড় থেকে অনেক দূরে প্রকৃতির সৌন্দর্য অনুভব করুন আপনার ভালোবাসার মানুষটির সঙ্গে। আনন্দসফর প্যাডেল বোট কিংবা আরামদায়ক শিকারার। বোটে দু’জন, তিন জন ও চার জনের বসার ব্যাবস্থা।

আপনি যেমনটি চান তেমনটি বেছে নিন। কলকাতার ‘লাভ বার্ড’–দের জন্যে নিখুঁত ‘বাসা’ এটি। যদি কম খরচে প্রকৃতির কোলে আপনার সঙ্গী অথবা সঙ্গিনীর জন্যে একটু হাসি–মজা চাইলে নলবন বোটিং কমপ্লেক্স আদর্শ জায়গা। এখানকার সবচেয়ে আকর্ষণীয় জিনিসটি হল চারশো একর জায়গার ওপর ছবির মতো লেক।

4. ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল

আপনার প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে যদি পুরনো সময়ে ঘুরে বেড়াতে চান তবে আসুন ভিক্টোরিয়ায়। ব্রিটিশ আমলে এই শহরের ছবি, অমূল্য সব ফটোগ্রাফ এবং হাতের তৈরি জিনিস দেখতে ভুলবেন না।


আর যদি আপনাদের জুড়ি কুঁড়ে হয়, তাহলে বাইরে বাগান রয়েছে। নিরিবিলি পরিবেশে বাগানে বসে আরাম করে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনীর সঙ্গে দীর্ঘ কথোপকথন চালিয়ে যান। কেউ আপত্তি করবে না।

5. বাগবাজার ঘাট

প্রায় জন্মলগ্ন থেকে কত যে প্রেমের সাক্ষী এই নিরিবিলি ঘাট! সব প্রজন্মের কাছেই বাগবাজার ঘাট সমান প্রিয়। আপনার আগের প্রজন্মকেই জিজ্ঞেস করে দেখুন। নিশ্চিত তাঁরাও কলেজ কেটে এখানে এসে হুগলি নদীর মনোরম শোভা উপভোগ করেছেন। নদীতে সবসময়েই যাতায়াত করছে স্টিমার। একঝাঁক যাত্রী উগরে দিচ্ছে উল্টোদিকের তীরে।

আপনারা ঢুকে পড়বেন এক পুরনো জগতের মধ্যে। আপনারা নদীর অপর পাড়েও যেতে পারেন। তবে হ্যাঁ, এখানকার চা খেতে ভুলবেন না কিন্তু। গোটা ব্যাপারটা একেবারে কেকের ওপর চেরির মতো সুস্বাদু ও মনোরম।

6. সিটি সেন্টার, সল্টলেক

আপনারা খাদ্য রসিক, মজা ভালোবাসেন নাকি রোম্যান্টিক প্রেমিক–প্রেমিকা? সল্টলেকের সিটি সেন্টার সেই জায়গা, যেখানে একদিনের বেড়ানোর জন্যে সবকিছু আছে আপনাদের জন্যে। মল–এ কেনাকাটা করতে পারেন। বাইরে আরামে বসতে পারেন অথবা ফুড কোর্ট–এ খেতে পারেন পছন্দের খাবার।

একেবারে আদর্শ পরিবেশ। কেনাকাটি, খাওয়া–দাওয়া এবং বিনোদন — আপনি যা চান সবই পাবেন সিটি সেন্টারে। সবচেয়ে বেশি আছে খাবারের দোকান। বিভিন্ন রকমের খাবার মিলবে এখানে। ইটালিয়ান থেকে থাই, উত্তর পশ্চিম ভারত থেকে চাইনিজ। ঠিক যেমনটি আপনাদের পছন্দ। সিনেমা প্রিয় জোড়াদের জন্যে রয়েছে মাল্টিপ্লেক্স। মজা করতে ভালোবাসেন এমন প্রেমিক–প্রেমিকাদের জন্যে এখানে আছে বিশাল সংখ্যক ইলেকট্রনিক গেমস ও বিনোদনের সম্ভার।

আর কী, এবার বেড়িয়ে পড়ুন আর প্রেম করুন জমিয়ে।

Discussions



TY News