প্রধানমন্ত্রী মোদির গৃহীত গ্রামে নোট বদলানোর লাইনে মানুষ ব্যবহার করছে জুতো

3:23 pm 16 Nov, 2016


500 ও 1000 টাকার নোট বাতিলের পর পুরানো নোট বদলানোর জন্য দেশের সমস্ত অংশে ব্যাঙ্কে মানুষকে বিশান লাইন দিতে দেখা যাচ্ছে। কিন্তু বারাণসীর জয়াপুর গ্রামে একটি ভিন্ন চিত্র ধরা পড়েছে। 2014 সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এই গ্রামটি দত্তক নেওয়ার পর সকলের নজরে এসেছিল এই গ্রামটি।

যেখানে মানুষ 5-6 ঘন্টা ধরে লাইন দিয়ে ক্লান্ত হয়ে পড়ছে। সেখানে এখানকার মানুষ তাদের জুতো দিয়ে লাইন দিচ্ছেন।

ndtv

ndtv

বিভ্রান্তি এড়াতে,জুতোতে রয়েছে মালিকের নাম এবং কে কত পরিমাণে টাকা তুলবে সেই অঙ্কটাও দেওয়া রয়েছে।

দেশের বিভিন্ন অংশে টিত্রটা একইরকম। সবজায়গায় মানুষ সকাল থেকে লাইন দিচ্ছে। লাইনে দাড়িয়ে ক্লান্ত হওয়ার থেকে রক্ষা পাওযার জন্য তার নোট বদলানোর ক্ষেত্রে এই অনন্য উপায় নিয়েছে।

ndtv

ndtv

দৈনন্দিন প্রয়োজনের জন্য এবং বাড়িতে বিয়ে থাকার কারণেই অর্থের প্রয়োজন পড়ছে।

মানুষ চিন্তিত যে, তারা যদি টাকা না পায় তাহলে তাদের দৈনন্দিন জীবনে নিরুদ্যম হয়ে পড়বে। তাদের গ্রামে একটি কার্ড স্যুইপিং মেশিন না থাকার সম্পর্কে তারা আকাঙ্ক্ষিত।

ndtv

ndtv

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দ্বারা এই গ্রামটি দত্তক নেওয়ার আগে এখানে কোনও ব্যাঙ্ক পরিষেবা ছিল না। টাকা জমা দেওয়ার জন্য তাদের পার্শ্ববর্তী গ্রামের ব্যাঙ্কের ওপর নির্ভরশীল থাকতে হতো।

indianexpress

indianexpress

ব্যাঙ্কের বাইরে বিশাল লাইনে দাড়িয়ে মানুষের মধ্যে রাগ এবং বিশৃঙ্খলা দেখা যাচ্ছে। অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি উত্তাপ প্রশমিত করার চেষ্টা করছেন। এটিএম এর স্বাভাবিক ভাবে কাজ করতে এখনও দুই থেকে তিন সপ্তাহ সময় লাগবে।

অরুণ জেটলি জানিয়েছেন নতুন নোট বন্টনের জন্য প্রতিটি এটিএম এর পুনঃক্রমাঙ্কিত করা প্রয়োজন হবে, আর সেই কারণে পুরো প্রক্রিয়াটি হতে কিছু সময় লাগবে। তিনি সকলের কাছে ধৈর্য রাখার আপিল করেছেন। এই পদক্ষেপের সুফল পাবেন দেশবাসীরা।

Discussions