স্কুল পড়ুয়ারা তাদের পিগি ব্যাংক ভেঙ্গে দান করলো 73,000 টাকা

author image
6:40 pm 19 Nov, 2016


কালো টাকার ওপর মোদি সরকারের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর দেশের সর্বত্র ব্যাঙ্ক এবং এটিএমের লম্বা লম্বা লাইন পড়েছে। সবদিকে যেন হাহাকার পরিস্হিতি তৈরি হয়েছে। কেউ টাকা তোলার জন্য ভোর চারটে থেকে লাইন দিচ্ছে, আবার কেউ রাত থেকেই ব্যাঙ্কের সামনে বিছানা পেতে শুয়ে পড়ছেন। যাতে ব্যাঙ্ক খোলার সাথে প্রথমেই তারা টাকা পেয়ে যান।

এরইমধ্যে মধ্যপ্রদেশে দেখা গেল ভিন্ন ছবি। হারডোই এর স্কুলের পড়ুয়ারা তাদের টাকা জমানোর ভাড় ভেঙ্গে স্হানীয় ব্যাঙ্কে জমা দিয়েছে 73,000 টাকা। সাধারণ মানুষদের সাহায্যের জন্য তারা এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

4-17 বছর বয়সের এই পড়ুয়ারা জানিয়েছে, তারা লোকেদের সাহায্য করার জন্য এই পদক্ষেপ নিয়েছে। এই সময় মানুষ বহু সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। এই সমস্যা কিছুটা কমানোর জন্যই তারা এই টাকা দান করেছে।

এমনটা প্রথমবার নয় যখন মানুষ একে অপরের সাহায্য করার জন্য এগিয়ে এসেছেন। এর আগেও মানুষ তাদের এলপিজি ভর্তুকি ছেড়ে দিয়েছেন। অভাবগ্রস্ত বাড়ীতে কাঠ এবং কয়লা পুড়িয়ে রান্না করার ফলে তাদের স্বাস্হ্য সমস্যা হতো। এইসব মানুষদের সাহায্য করার জন্য তারা তাদের ভর্তুকি ছেড়ে দিয়েছেন।


প্রধানমন্ত্রীর জনধন যোজনা প্রকল্পের দ্বারা গরীব মানুষরা জিরো ব্যালেন্সে ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ পেয়েছিলেন।

ডি-মনিটাইজেশনের ফলে মানুষকে বহু সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। ব্যাঙ্ক ও এটিএম ঘন্টার পর ঘন্টা লাইন দিয়ে দাড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। টাকা পাল্টানোর জন্য একরকমের যুদ্ধ করতে হচ্ছে সকলকে। কিন্তু দেশের উন্নতির জন্য এবং দুর্নীতি রুখতে তারা এই কষ্ট করতেও প্রস্ত্তত।

প্রধানমন্ত্রীর এই সাহসী পদক্ষেপের প্রশংসা সর্বত্র হচ্ছে। এর সাথে লাইনে দাড়িয়ে থাকা মানুষদের চা ও জল দিয়ে সাহায্য করতেও দেখা যাচ্ছএ অনেককে।

Popular on the Web

Discussions



  • Co-Partner
    Viral Stories

TY News