রিও অলিম্পিকে ভারতের প্রথম পদক, রোহতাকের মেয়ের কুস্তির প্যাঁচে এল ব্রোঞ্জ

author image
12:32 pm 18 Aug, 2016


অলিম্পিকের ১২ তম দিনে ভারতকে পদকের মুখ দেখালেন হরিয়ানার সাক্ষী মল্লিক। ৫৮ কেজি কুস্তি বিভাগে ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে এলেন সাক্ষী। প্রথম দুটি ম্যাচে জেতার পর কোয়াটার ফাইনালে রাশিয়ার প্রতিদ্বন্দ্বীর কাছে হেরে যান।

রুশ ফাইনালে উঠে যাওয়ায় অলিম্পিকের নিয়মমত তার সামনে ব্রোঞ্জের লড়়াইয়ে সুযোগ আসে। রেপেশাজ রাউন্ড টু বাউটে প্রথমে সাক্ষী হারান মঙ্গোলিয়ার ওরকনকে ১২-৩ ফলে। কিন্তু ওরকনকে হারানো সহজ ছিল না। মঙ্গোলিয়ার ওরকন ফেব্রুয়ারিতে কুস্তি প্রতিযোগিতায় ৩ বার অলিম্পিক বিজয়ী কাওরী ইচোকে ১০-০ ফলে হারিয়েছিলেন।

গ্র্যান্ড প্রিক্স ইভেন্টে সবাইকে স্তব্ধ করে মঙ্গোলিয়া ম্যাচের একটি বিশাল লিড নিয়ে স্বর্ণ পদক জেতে ওরকন।২০১৩ র বিশ্ব জুনিয়র কুস্তি প্রতিযোগিতায় ব্রোঞ্জ পদক বিজয়ী ওরকন।

এরপরই ব্রোঞ্জ পদকের ম্যাচে কিরগিজস্তানের আইসুলু তিনিবেকোভার বিরুদ্ধে শুরু হয় তাঁর লড়াই। প্রথম ধাপে ০-৫-এ পিছিয়ে পড়েও লড়াইয়ে দারুণভাবে ফিরে আসেন ২৩ বছরের হরিয়ানভি। ৮-৫ পয়েন্টে প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে জেতেন ব্রোঞ্জ পদক।


২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে মেরি কমের সাফল্য ভারতীয় বক্সিং পরিবর্তন আনে।৪৬ কেজি এবং৪৮ কেজি ক্যাটাগরিতে বিশ্ব অপেশাদার শিরোপা জেতেন। কিন্তু গেমসে তিনটি ওজন বন্ধনী৫১ কেজি ছিল। শুধুমাত্র ভারতীয় মহিলা বক্সার এই যোগ্যতা অর্জন করেছেন। কেবল ফ্লাইওয়েট বিভাগে না , কিন্তু ক্রীড়া উন্মাদনায় বিভাগে ব্রোঞ্জ পদক জিতে নেন।

সাইনা নেহওয়াল প্রথম ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়় যে ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে পদক জিতেছে।

ভারোত্তলক কর্ণম মালেশ্বরী, বক্সার মেরি কম ও ব্যাডমিন্টনের সাইনা নেহওয়ালের পর সাক্ষীই চতুর্থ মেয়ে, যিনি অলিম্পিকে ভারতের মুখ উজ্জ্বল করেছে।

Popular on the Web

Discussions





  • Viral Stories

TY News