জীবনে টাকার অভাব কমাতে দীপাবলির আগে করুন এই উপায়গুলি

2:30 pm 24 Oct, 2016


ধন সম্পদ সবার কাছে অত্যন্ত জরুরী জিনিস। এটা না থাকলে জীবন যেন অন্ধকার হয়ে যায়। কাউর কাছে বেশি পরিমাণে আছে আবার কাউর কাছে কম পরিমাণে। যার কাছে কম পরিমাণে আছে তারা এর পরিমাণ নিশ্চয়ই বাড়াতে চান। তাই দীপাবলির আগে কিছু উপায় করলে এই সমস্যার সমাধান হবে।

দীপাবলির আগে পুণ্য নক্ষত্রে কেনাকাটা করা খুব শুভো বলে মনে করা হয়। যদি এই শুভো নক্ষত্র সোমবার, বৃহস্পতিবার এবং রবিবার পড়ে তাহলে তা খুব ফলদায়ী হবে।

এই বছর কার্তিক অমাবস্যার দুই দিন আগে পুণ্য নক্ষত্র পড়ছে। এই দিন আরাধ্য দেবতা এবম কুলদেবতার উপাসনা করা উচিত। এই পুজো করলে মা লক্ষ্মী খুব প্রসন্ন হন এবং আপনার ধনসম্পদ বাড়ে। এই নক্ষত্রে সোনা,রুপো,মূল্যবান পাথর,এবং গয়না কেনা খুবই শুভ।

পুণ্য নক্ষত্রে কেনাকাটার জন্য শুভো সময় হলো

সকাল 9 টা থেকে 10:30.

সকাল 10:31 থেকে 12 টা আর সন্ধ্যে 7:30 থেকে 9:01 পর্যন্ত।

দুপুর 1:30 থেকে 3 এবং 8 টা থেকে 7:30 পর্যন্ত।

বাড়িতে টাকার অভাব হবে না

রবিপুণ্য নক্ষত্রে একাক্ষী নারিকেলের পুজো করলে বাড়িতে কখনও টাকার অভাব হয় না। এই নারিকেলের ওপরের দিকে একটা চোখের চিহ্ন থাকায় একে একাক্ষী নারিকেল বলা হয়। এই নারিকেলটিকে মা লক্ষীর স্বরূপ বলে বিবেচনা করা হয়েছে। রবিপুণ্য নক্ষত্রের দিন বাড়িতে একাক্ষী নারিকেলের বিধিবিধানের সাথে পুজো করলে বাড়িতে টাকার অভাব হয় না।

পূজা ও অনুষ্ঠানের বিধি-বিধান

স্নান করার পর সাদা বস্ত্র পড়তে হবে। এর পর রবিপুণ্য নক্ষত্রের দিন শুভো মুহুর্তে থালায় চন্দন আর সিদুঁর দিয়ে অষ্টদল বানিয়ে তার ওপর নারিকেল রেখে দিয়ে ধূপকাঠি ও দীপ জ্বালাতে হবে।

নারিকেলকে গঙ্গাজল দিয়ে শুদ্ধ করে ফুল, চাল, ফল উত্সর্গ করবেন। এর সাথে নারিকেলের ওপর লাল কাপড়ও দেবেন।

একাক্ষী নারিকেলকে রেশমের কাপড় দিয়ে জড়িয়ে মন্ত্র লিখতে হবে-ওমঃ শ্রী হীঃ কলী এ মহালক্ষ্মী স্বরুপায়ে একাক্ষীনারিকেলায়ে নমঃ: সর্বসিদ্ধি কুরু কুরু স্বাহা।

ওমঃ এঃ শ্রী একাক্ষীনারিকেলায়ে নমঃ মন্ত্র পড়তে পড়তে 108 টি গোলামের পাপড়ি ছড়িয়ে দিন। পাপড়ি ছড়ানোর সময় এই মন্ত্রের উচ্চরণ করতে থাকুন।

দীপাবলি পর্যন্ত রোজ 21 টি গোলাপ ফুল দিয়ে পুজো করুন এবং রেশমের কাপড়ে জড়ানো নারিকেলকে পুজোর স্হানে রেখে দিন। এই ধরনের একাক্ষী নারিকেল ঘরে স্হাপন করলে ধন-সম্পত্তির বৃদ্ধি হয়।

Discussions