পাতা না উল্টেই পড়ে ফেলুন গোটা বই

author image
12:29 pm 16 Sep, 2016


এবার পাতা না উল্টে পড়ে ফেলতে পারবেন গোটা বইটা, একটি ফ্রিকোয়েন্সিতেই আদান প্রদান হবে সিগন্যাল।

এই আবিষ্কারের পেছনে রয়েছে ভারতের ছোয়া। যুগান্তকারী আবিষ্কারের জন্য তারা পেলেন আমেরিকার সবচেয়ে সম্মানীয় পুরস্কার। এঁদের মধ্যে একজন বর্তমানে ম্যাসাচুটেস ইনস্টিটিউট অফ টেকনলজির(MIT) বিজ্ঞানী, অন্যজন গবেষক।

ফেমটো ফোটোগ্রাফি নিয়ে কাজ করেছেন MIT-র অধ্যাপক রমেশ রাসকার। দীনেশ ভারাদিয়া ফ্রিকোয়েন্সি নিয়ে গবেষণা করছেন।রমেশ রাসকার 5 লাখ মার্কিন ডলার লেমেলসন-MIT পুরস্কার পেয়েছেন। কেমব্রিজের ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয় মঙ্গলবার তাকে পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন।


কাজটা হলো ফেমটো ফোটোগ্রাফি নিয়ে। যার মধ্যে রয়েছে অতিদ্রুত চিত্রগ্রহণ পদ্ধতি। এর মাধ্যমে কম খরচে গরীবদের চোখের চিকিত্সা হবে এবং বইয়ের পাতা না উল্টেই পড়া যাবে পুরো বই। এই প্রযুক্তিতে তৈরি ক্যামেরা এক সেকেন্ডে এক ট্রিলিয়ন ফ্রেম ক্যাপচার করতে পারবে। এই ক্যামেরার সাহায্যে অলোর চলাফেলাও চাক্ষুস করা যাবে। শরীরের ভেতর রোগ নির্ধারণ করতেও সক্ষম। পরিবহন নিরাপত্তার ক্ষেত্রেও ব্যাবহার করা যেতে পারে এই ক্যামেরা।

দীনেশ সরকার গবেষণার জন্য অ্যামেরিকার মারকোনি সোসাইটির পল ব্যারন ইয়ং স্কলার পুরস্কার পেয়েছেন। একই চ্যানেলের মাধ্যমে রেডিওয় সিগন্যাল দেওয়া-নেওয়ার মতো যুগান্তকারী আবিষ্কার করেছেন। মোবাইলের ক্ষেত্রেও তার গবেষণা কাজে লাগবে। মোবাইল ফোন ও ডেটার ক্ষেত্রে একই চ্যানেলে সিগন্যাল আদানপ্রদান হবে।ভারতের মতো দেশে নেটওয়ার্কের ক্ষেত্রে এই আবিষ্কার ব্যাপক পরিবর্তন আনবে।

Popular on the Web

Discussions



  • Co-Partner
    Viral Stories

TY News