এই অভিনেত্রীদের মৃত্যুর রহস্য আজ পর্যন্ত সমাধান হয়নি

12:21 pm 2 Nov, 2016


আকস্মিক এবং মর্মান্তিকভাবে  মৃত্যু হওয়া সেলিব্রিটিদের একটি তালিকা। যাদের মৃত্যুর কারণ আজ পর্যন্ত জানা যায়নি।

দিব্যা ভারতী

90 র দশকের বিখ্যাত অভিনেত্রী দিব্যা ভারতী আজও সকলের স্মরণে আছে। অনেক ছোট বয়সে তাকে বহু বিপদের সম্মুখীন হতে হয়েছে। কিন্তু কে জানতো যে এই কারণ তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেবে। মাত্র 19 বছর বয়সে দিব্যা ভারতীর মৃত্যু হয়। এই ঘটনা সকলের কাছে অবিশাস্ব্য ছিল। কিন্তু আজ পর্যন্ত জানা যায়নি তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন না তাকে মেরে ফেলা হয়েছিল। এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে কোনও কিছু পরিস্কার হয়নি। মৃত্যুর এক বছর আগে তার বিয়ে হয় সাজিদ নাদিয়াদয়ালার সাথে। ভারসোভার তুলসী অ্যাপার্টমেন্টের পঞ্চম তলা থেকে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়।

জিয়া খান

25 বছরের জিয়া খানের মৃত্যুর পর একটা প্রশ্ন বারবার উঠেছে তার মৃত্যু কিভাবে হলো এবং কেনও হলো। নিঃশব্দ, গজনি এবং হাউসফুলের মতো সিনেমায় অভিনয় করেছে জিয়া। 3 জুলাই 2013 সালে তার বাড়িতে সিলিং ফ্যানে তাকে ঝুলন্ত অবস্হায় পাওয়া যায়। তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন।

সিল্ক স্মিতা

দক্ষিণ চলচ্চিত্রের সুপরিচিত অভিনেত্রী বিজয়নক্ষ্মী ভাদলাপতী ওরফে সিল্ক স্মিতা পারিবারিক কষ্টের কারণে চলচ্চিত্র জগতে্ আসেন। এখানে নিজের একটি বিশেষ জায়গা তৈরি করে নেন। কিন্তু সমস্যা তার পেছন ছাড়েনি। 17 বছর ধরে 450র বেশি সিনেমায় তিনি কাজ করেছেন। 1996 সালে 23 সেপ্টেম্বর স্মিতা আত্মহত্যা করে। প্রেমে ব্যর্থতা,বিষণ্নতা এবং মদের ওপর তার নির্ভরতা তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়েছিল।

পারভিন বাবি

বিখ্যাত অভিনেত্রী পারভিন বাবি নিজের অভিনয়ের জোরে সকলের হৃদয়ে বিশেষ জায়গা তৈরি করেছিলেন। সবার হৃদয়ে জায়গা তৈরি করলেও নিজের স্বামীর হৃদয়ে জায়গা না পাওয়ায় বিষণ্নতায় ভুগতেন। যার কারণে তিনি আত্মহত্যা করে নেন। কিন্তু তার মৃত্যু সম্পর্কে অনেক গুজব আছে। অনেকে বলেন ডায়াবেটিসের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। আবার অনেকের মতে বিবাহিত পুরুষের সাথে তার সম্পর্ক ছিল যার কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। পারভিন বাবির শরীর তার মৃত্যুর দুই-তিন পর তার অ্যাপার্টমেন্ট থেকে বের করা আনা হয়,যখন মৃতদেহের দুর্গন্ধ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছিল। তখনই সবাই তার মৃত্যুর কথা জানতে পারে।

নাফিসা জোসেফ

নাফিসা একজন মডেল হওয়ার সাথে এমটিভি চ্যানেলের ভিডিও জকি ছিলেন। নাফিসা জোসেফ 1997 সালের মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্সের বিজয়ীও ছিলেন। জোসেফ 2004 সালে 29 জুলাই নিজের অ্যাপার্টমেন্টে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে নেন। তার মা-বাবার অনুযায়ী বিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ার করণে নাফিসা এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

ভিভেকা বাবাজি

1993 সালে মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী এবং মিস মরিশাস ভিভেকা বাবাজি কামসূত্র বিজ্ঞাপন থেকে যথেষ্ঠ চর্চিত হয়েছিলেন। 2010 সালে 25 জুন 37 বছর বয়সে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। বলা হয় ব্যক্তিগত জীবনে বিভিন্ন সমস্যার কারণে তিনি তার প্রাণ দিয়েছেন।

Discussions